সোমবার | ০৩ অগাস্ট, ২০২০
রাঙামাটির

বালুখালীতে আবু আলম-আছিয়া বাহিনীর সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তারের দাবি

প্রকাশঃ ১৬ জুলাই, ২০২০ ০৬:১৮:২৬ | আপডেটঃ ০৩ অগাস্ট, ২০২০ ০২:৫০:৫৭  |  ১৩০৪
সিএইচটি টুডে ডট কম, রাঙামাটি। রাঙামাটিতে আবু আলম ও তার স্ত্রী আছিয়া বেগমের নেতৃত্বে স্থানীয় একটি সন্ত্রাসী বাহিনীর অত্যাচারে অতিষ্ঠ সদর উপজেলার বালুখালী ইউনিয়নের সাপমারা পাহাড় বাঙালিপাড়ার এলাকাবাসী। এসব সন্ত্রাসীকে অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবিতে বৃহস্পতিবার রাঙামাটিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন, এলাকার সাধারণ মানুষ। তার আগে সকালে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন করা হয়েছে।

দুপুরে রাঙামাটি রিপোর্টার্স ইউনিটির সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে নেজাম উদ্দিন ফকির, শাহাদাৎ হোসেন, জাহিদা বেগম, জামাল হোসেন, জসিম উদ্দিনসহ বালুখালী ইউনিয়নের সাপমারা পাহাড় বাঙালিপাড়ার এলাকাবাসী উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় তারা বলেন, আছিয়া বেগম রাঙামাটি সদর উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতির পরিচয় দিয়ে ক্ষমতাসীন দলের প্রভাবে তিনি এলাকায় গড়ে তুলেছেন একটি সন্ত্রাসী বাহিনী। এতে যুক্ত তার স্বামী আবু আলমসহ ছেলেরা। স্থানীয় এলাকায় তাদের পরিচিতি পেয়েছে আবু আলম-আছিয়া বাহিনী নামে। আবু আলম ও আছিয়া বেগমসহ তাদের দলের প্রত্যেকের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা। আবু আলম ও আছিয়া বেগমের ছেলে আবুল হোসেন সুমন পাঁচ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামি। অথচ ধরাছোঁয়ার বাইরে সে। তাকে গ্রেফতারে তৎপর নয় পুলিশ। সুমনের ভাই সোহেলও কয়েকটি মামলার অন্যতম আসামি।

সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করে বলা হয়, আবু আলম-আছিয়া বাহিনীর লোকেরা স্থানীয় এলাকায় চাঁদাবাজি, পাহাড় দখল, কাপ্তাই হ্রদ এলাকায় দখল, গাছ ও মাটি কেটে পাচারসহ নানা অপকর্মে লিপ্ত। এলাকার সাধারণ মানুষের ওপর অত্যাচার, নির্যাতন চালিয়ে যাচ্ছে। সাধারণ মানুষদের কাছ থেকে চাঁদাবাজি করে যাচ্ছে। অনেকের জায়গা-জমি কেড়ে নিয়েছে। তাদের অপকর্মের প্রতিবাদ করলে সাধারণ মানুষের ওপর অত্যাচার, নির্যাতনের খড়গ চালায় আবু আলম-আছিয়া বাহিনী। কথায় কথায় সাধারণ মানুষকে প্রাণনাশের হুমকি দেয়। ওই এলাকায় কেপকো আজিজ কোম্পানির জায়গা অবৈধ দখলে নিয়েছে। কোম্পানিটির বাগান থেকে অবাধে গাছ কেটে পাচার করে আসছে আবু আলম, আছিয়া বেগমসহ তার বাহিনীর সন্ত্রাসীরা। বাধা দেয়ায় অনেকবার হামলা করেছে, কোম্পানির চৌকিদার নেজাম উদ্দিন ফকিরের ওপর। অতিষ্ঠ হয়ে তাদের এসব অপকর্মের বিরুদ্ধে অনেকগুলো মামলা করেছে, নির্যাতনের শিকার সাধারণ মানুষ। কিন্তু গ্রেফতার ও শাস্তি না হওয়ায় তাদের তান্ডব দিন দিন বেড়ে যাচ্ছে।

নেজাম উদ্দিন ফকির বলেন, তার কোম্পানির বাগানের গাছ জোরপূর্বক কেটে নেয়ার প্রতিবাদ করায় তার ওপর বহুবার অমানুষিক নির্যাতন করেছে আবু আলম-আছিয়ার লোকেরা।  কিছু দিন আগে তার বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে সন্ত্রাসীরা। এলাকাবাসী এগিয়ে গিয়ে আগুন নিভিয়ে দিয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে আবু আলম ও তার স্ত্রী আছিয়া বেগমসহ অবিলম্বে এসব একাধিক মামলার আসামি ও চিহ্নিত সন্ত্রাসীকে গ্রেফতার করে দৃষ্টামূলক শাস্তির দাবি করেছেন এলাকাবাসী।

এদিকে বুধবার রাতে আবু আলম ও আছিয়া বেগমের ছেলে সোহেলকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এ ব্যাপারে রাঙামাটি কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)  মো. কবির হোসেন বলেন, এক আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান শুরু হয়েছে।

রাঙামাটি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions