রবিবার | ১৭ অক্টোবর, ২০২১

বান্দরবানের ২৮ টি ইটভাটাকে ১ কোটি ৮ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

প্রকাশঃ ৩১ অগাস্ট, ২০২১ ১১:০৮:২৩ | আপডেটঃ ১৬ অক্টোবর, ২০২১ ০৫:৩৮:০০  |  ১৮৭
সিএইচটি টুডে ডট কম, বান্দরবান।  একের পর এক পাহাড় কর্তন , অবৈধ ভাবে ইটভাটা পরিচালনাসহ বিভিন্ন অপরাধের দায়ে বান্দরবান জেলার লামা উপজেলার ফাইতং ইউনিয়নের ২৮টি ইটভাটাকে ১ কোটি ৮ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম অঞ্চল।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, পরিবেশের ক্ষতিসাধন করায় বাংলাদেশ পরিবেশ সংরক্ষন আইন ১৯৯৫ (সংশোধিত২০১০) এর ৭ ও ১২ ধারার আলোকে ইটভাটাগুলোকে জরিমানা করা হয়।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায়  পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম অঞ্চলের পরিচালক মফিদুল আলম প্রেরিত এক বার্তায় জানা যায়, বান্দরবানের লামার ফাইতংয়ে অবস্থিত ডিবিএম ব্রিক্সকে ৫ লক্ষ টাকা, এ এম আর ব্রিক্সকে ৪ লক্ষ টাকা, এম এইছবি ব্রিক্সকে ৪ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা, এমবিএস ব্রিক্সকে ৪ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা, ওয়াই এসবি ব্রিক্সকে ১ লক্ষ টাকা, ইউ এম বি ব্রিক্সকে ৫ লক্ষ ১০ হাজার টাকা, বিবিএম ব্রিক্সকে ৩ লক্ষ ২০ হাজার টাকা, ফোর বিএম ব্রিক্সকে ১ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা, এস বি ডাব্লিউ ব্রিক্সকে ৫ লক্ষ টাকা, এমএমবি ব্রিক্সকে ৪ লক্ষ টাকা, এফ এ সি ব্রিক্সকে ৫ লক্ষ টাকা, ফাইভ বিএম ব্রিক্সকে ৪ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা, এবিসি ব্রিক্সকে ৩ লক্ষ টাকা, থ্রি বিএম ব্রিক্সকে ৪ লক্ষ ৭০ হাজার টাকা, ইবিএম ব্রিক্সকে ১লক্ষ টাকা, এসএবি ব্রিক্সকে ৩ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা, এন আর বি ব্রিক্সকে ২ লক্ষ টাকা, কেবিসি ব্রিক্সকে ৪ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা, এসকেবি ব্রিক্সকে ৩ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা, ইউবিএম ব্রিক্সকে ৪ লক্ষ ৭০ হাজার টাকা, এবিসি-৩ ব্রিক্সকে ৫ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা, এসবিএম ব্রিক্সকে ২ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা, এএমবি ব্রিক্সকে ৩লক্ষ ২০ হাজার টাকা, এমবিআই ব্রিক্সকে ৫ লক্ষ ১০ হাজার টাকা, এইছবিএম ব্রিক্সকে ৪ লক্ষ ২০ হাজার টাকা, টিএইছবি ব্রিক্সকে ১ লক্ষ টাকা, বিবিসি ব্রিক্সকে ৭ লক্ষ টাকা, এবিএম ব্রিক্সকে ৫ লক্ষ টাকা  জরিমানা ধায্য করা হয় ।

মোট ২৮টি ইটভাটাকে  সর্বমোট ১ কোটি ৮ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

পরিবেশ অধিদপ্তর বান্দরবান কার্যালয়ের পরিদর্শক মো.আব্দুল ছালাম জানান,পরিবেশের ক্ষতিসাধন করায় বাংলাদেশ পরিবেশ সংরক্ষন আইন ১৯৯৫ (সংশোধিত২০১০) এর ৭ ও ১২ ধারার আলোকে ইটভাটাগুলোকে  জরিমানা করা হয়েছে এবং আগামী এক মাসের মধে এই জরিমানার অর্থ প্রদান করতে হবে ইটভাটার মালিকদের।         

পরিবেশ |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions