মঙ্গলবার | ১৫ অক্টোবর, ২০১৯

খাগড়াছড়িতে সেনাবাহিনী ও ইউপিডিএফের সন্ত্রাসীদের মধ্যে গোলাগুলিতে এক সেনা কর্মকর্তা আহত, অস্ত্রসহ আটক ১

প্রকাশঃ ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১০:২০:১৭ | আপডেটঃ ১৪ অক্টোবর, ২০১৯ ০৫:১১:৩৪  |  ১৫০৭
সিএইচটি টুডে ডট কম, খাগড়াছড়ি। খাগড়াছড়ির মানিকছড়িতে সেনাবাহিনীর সাথে আঞ্চলিক সংগঠন ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ প্রসীত) এর সাথে গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে।

বুধবার বিকেল সাড়ে ৫টায় মানিকছড়ির বড়ডলু এলাকা সেনাবাহিনীর টহল দলের সাথে ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুপের সশস্ত্র দলের মুখোমুখি হলে গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে এসএমজি সহ এক সশস্ত্র সন্ত্রাসীকে আটক করেছে সেনাবাহিনী। দুই পক্ষের মধ্যে গোলাগুলিতে লক্ষ্মীছড়ি সেনা জোনের উপ অধিনায়ক মেজর মো. আনিসুর রহমান গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।   

নিরাপত্তা বাহিনীর সূত্র জানায়, সন্ত্রাসীরা সেনাবাহিনীর টহল দলের ওপর অতর্কিত হামলা শুরু করলে সেনাবাহিনী আত্মরক্ষায় গুলি ছুঁড়ে। এসময় উভয় পক্ষের মধ্যে দেড় ঘন্টার মতো গোলাগুলি চলে। সন্ধ্যা ৭ টার দিকে সেনাবাহিনীর লক্ষ্মীছড়ি জোনের আরেকটি টিম ঘটনাস্থলে পৌঁছার পর তল্লাশি শুরু করলে একটি এসএমজি সহ এক সশস্ত্র সন্ত্রাসীকে আটক করা হয়। তাৎক্ষনিক আটককৃত ব্যক্তির নাম পরিচয় জানা না গেলেও সে ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুপের সশস্ত্র সন্ত্রাসী দাবি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর। ঘটনাস্থলে তল্লাশি চালিয়ে একটি এসএমজি, ২৬ রাউন্ড গুলি ও একটি ম্যাগজিন উদ্ধার করা হয়েছে। আহত সেনা কর্মকর্তা মেজর মো. আনিসুর রহমানকে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম সামরিক সম্মিলিত হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুপের খাগড়াছড়ি জেলার সংগঠক অংগ্য মারমা জানান, সেনাবাহিনীর সাথে গোলাগুলির ঘটনায় ইউপিডিএফ’র কোন সম্পৃক্ততা নেই। যে এলাকায় গোলাগুলির কথা দাবি করা হচ্ছে সে এলাকায় ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুপের সাংগঠনিক কোন কার্যক্রম নেই।

মানিকছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমির হোসেন জানান, সেনাবাহিনীর সাথে ইউপিডিএফ’র গোলাগুলিতে এক সেনা কর্মকর্তা আহত হওয়ার খবর শুনেছি। পুলিশ ঘটনাস্থলে এখনও পৌছাতে পারেনি।   

খাগড়াছড়ি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions