রবিবার | ০৭ মার্চ, ২০২১
বাঘাইছড়িতে

২ প্রতিবন্ধী সন্তান, বৃদ্ধ মা এবং অসুস্থ্য স্ত্রীকে নিয়ে মানবেতর জীবন কাটাচ্ছে উত্তম দাশ মনু

প্রকাশঃ ১৮ জানুয়ারী, ২০২১ ১২:০৬:৪৫ | আপডেটঃ ০৬ মার্চ, ২০২১ ১০:৫৪:০৩  |  ১৯০
সিএইচটি টুডে ডট কম, বাঘাইছড়ি (রাঙামাটি)। রাঙামাটি জেলার বাঘাইছড়ি পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের  কাচালং বৈদ্য কলোনি এলাকার গরীব ও দরিদ্রপীড়িত উত্তম দাশ(৪৫) প্রকাশ মনু প্রতিবন্ধী সন্তানসহ অসুস্থ্য মা ও  স্ত্রীকে নিয়ে মানবেতর দিনযাপন করছেন।

তার ৩ছেলে স্ত্রী ও বৃদ্ধ মা সহ ৬ সদস্যের পরিবার, কিন্তু অন্য দশটি পরিবারের চাইতে তার পরিবারটি আলাদা। তার  ৩টি ছেলের মধ্যে ২ ছেলেই  প্রতিবন্ধী, মা দীর্ঘদিন যাবৎ অসুস্থ  এবং স্ত্রী ও মানসিক রোগী।

পুরো পরিবার একমাত্র মনু মিয়ার আয়ের উপর নির্ভশীল। দিন মজুরি করে কোন রকম সংসার চালান, একদিকে অসুস্থ মা ও স্ত্রী অন্যদিকে ২ প্রতিবন্ধী সন্তানদের রেখে তিনি কোন কাজও করতে পারছেন না। একদিন কাজ করতে পারলে আরেকদিন পারেন না, আর কাজ করতে না পারলে উপোষ থাকতে হয়।

মা স্ত্রী সন্তানদের  নিয়ে মনু মিয়ার  মানবেতর জীবন কাটছে । মাথা গোজার একমাত্র ঘরটিরও নাজুক অবস্থা, যে কোন সময় মাথার উপর ভেঙ্গে পড়ে দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। সামনে বর্ষা মৌসুমে কিভাবে থাকবে তা নিয়ে দুশ্চিন্তার শেষ নেই উত্তম দাশ মনুর। সরকারি সহায়তার জন্য আবেদন করেও কোন সুফল মিলেনি তার ।

বাঘাইছড়ি উপজেলার প্রবীন আওয়ামী লীগ নেতা ও বাঘাইছড়ি প্রেস ক্লাব সভাপতি দীলিপ কুমার দাশ বলেন, পরিবারটি খুবই দুঃখ দূর্দশার মধ্য দিয়ে জীবন পার করলেও এখনো কারো সুদৃষ্টি পড়েনি পরিবারটির প্রতি।

সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড কাউন্সিলর শহিদুল ইসলাম মিঠু বলেন, আসলে পরিবারটি খুবই অসহায় তার সন্তানকে প্রতিবন্ধী কার্ড করে দিয়েছে এবং জননেত্রী শেখ হাসিনার গৃহহীনদের মাঝে যে বিনামূল্যে ঘর উপহার  দেওয়া হয় সেখানে উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অবগত করেছি আশাকরি দ্রুততম সময়ে উপজেলা প্রশাসনের সহায়তায়  তার থাকার একটি ঘরের ব্যবস্থা করতে পারবো ।

বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ শরিফুল ইসলামের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি দাবি করেন, বাঘাইছড়িতে এই মুহূর্তে ৮০ টি সরকারি ঘরের কাজ চলমান রয়েছে এবং নতুন অনেকের তালিকা তৈরির কাজ চলমান রয়েছে। তাই আগামীতে অগ্র অধিকার ভিত্তিতে উত্তম দাশ মনুর বিষয়টি বিবেচনা করা হবে আশ্বাস দেন তিনি ।


রাঙামাটি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions