রবিবার | ০৭ মার্চ, ২০২১

নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তে ইয়াবা ব্যবসায়ী নিহত, ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধার

প্রকাশঃ ২২ জানুয়ারী, ২০২১ ০৪:১৩:৪৯ | আপডেটঃ ০৭ মার্চ, ২০২১ ০৩:০৪:১২  |  ১৭৩
সিএইচটি টুডে ডট কম, বান্দরবান। বান্দরবানের নাইক্ষংছড়ির ৩নং ঘুমঘুম ইউনিয়নের দক্ষিণ বাইশফাঁড়ী এলাকায় বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)’র অভিযানে এক ইয়াবা ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে এবং এই ঘটনায় উদ্ধার হয়েছে ৫০হাজার বার্মিজ ইয়াবা এবং দেশীয় তৈরী দুইনলা ১টি বন্দুক ও কার্তুজ।

পুলিশ ও বিজিবির সুত্রে জানা যায়, ২২ জানুয়ারি (শুক্রবার)  ভোরে কক্সবাজার ব্যাটালিয়ন (৩৪ বিজিবি) এর বাইশফাঁড়ী বিওপি’র সদস্যরা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করে। এসময় সীমান্ত পিলার ৩৬/২এস হতে আনুমানিক ১০০ গজ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে এবং বান্দরবান জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ৩নং ঘুমঘুম ইউনিয়নের দক্ষিণ বাইশফাঁড়ী নতুন ব্রীজ হতে আনুমানিক ১৫গজ পূর্ব দিকে   রাস্তার ঢালুতে অবস্থান করে বিজিবির সদস্যরা। পরে ভোর আনুমানিক ৪টার দিকে  ৮/১০ জনের ১টি দল পাহাড়ী এলাকা দিয়ে বাংলাদেশের দিকে আসতে দেখে তাদেরকে চ্যালেঞ্জ করলে তারা দুইভাগে বিভক্ত হয়ে তাদের হাতে থাকা অস্ত্র দিয়ে বিজিবির টহল দলকে লক্ষ্য করে এলোপাথাড়ি গুলি বর্ষণ শুরু করে।

এসময় বিজিবির টহল দল তাদের জানমাল রক্ষার্থে পাল্টা গুলি করে, এক পর্যায়ে অজ্ঞাতনামা ইয়াবা ব্যবসায়ীরা পাহাড়ী জঙ্গলের মধ্য দিয়ে মিয়ানমারের ভিতরে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে টহল দল ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় গুরুতর আহত মোঃ আব্দুর রহিম (২৫) পিতা:ওয়াদুল হককে উদ্ধার করে এবং তার কাছ থেকে ৫০ হাজার বার্মিজ ইয়াবা এবং দেশীয় তৈরী দুইনলা ১টি বন্দুক ও কার্তুজ উদ্ধার করে। পরবর্তীতে আহত ব্যক্তিকে চিকিৎসার জন্য উখিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

জানা যায়, গোলাগুলির ঘটনায় ২জন বিজিবি সদস্য আহত হয় এবং আহত বিজিবি সদস্যদের উখিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করা হয়েছে।

এদিকে নাইক্ষংছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো:আলমগীর হোসেন জানান,ঘটনায় ৫০ হাজার বার্মিজ ইয়াবা উদ্ধার রয়েছে যার আনুমানিক মূল্য এক কোটি পঞ্চাশ লক্ষ টাকা এবং দেশীয় তৈরী দুইনলা বন্দুক ১টি ও ৪ রাউন্ড বন্দুকের কার্তুজ উদ্বার করা হয়েছে। ওসি মো:আলমগীর হোসেন আরো জানান, এ ব্যাপারে আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

প্রসঙ্গত,কক্সবাজার ব্যাটালিয়ন (৩৪ বিজিবি) এর দায়িত্বপূর্ণ এলাকায় গত ১ জানুয়ারি ২০২০ হতে এখন পর্যন্ত চোরাচালান ও মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে বিজিবির টহলদল এর মাধ্যমে প্রায় একশ দশ কোটি বাইশ লক্ষ তিনশত টাকা মূল্যের বার্মিজ ইয়াবাসহ ৩২৩জন আসামী গ্রেফতার করা হয়েছে।


বান্দরবান |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions