রবিবার | ০৯ মে, ২০২১

রাঙামাটিতে সর্বাত্বক লকডাউন শুরু, বাজারে মনিটারিং করতে মাঠে জেলা প্রশাসক

প্রকাশঃ ১৪ এপ্রিল, ২০২১ ০৩:৪৯:১৪ | আপডেটঃ ০৯ মে, ২০২১ ০৭:১৭:২০  |  ২৬১
সিএইচটি টুডে ডট কম, রাঙামাটি। করোনা ভাইরাসের প্রার্দুভাব মোকাবেলায় সরকার ঘোষিত এক সপ্তাহ সর্বাত্বক লকডাউন রাঙামাটিতে পালিত হচ্ছে। লক ডাউনের কারণে সকাল থেকে বন্ধ রয়েছে সকল প্রকার শপিংমল ও দোকান। খোলা রয়েছে কেবল ওষুধ, কাচাবাজার ও মুদি দোকান।

সকাল থেকে রাঙামাটি শহরে আভ্যন্তরীন যানবাহন চলাচল না করলেও অনেককে ব্যাক্তিগত মোটর সাইকেল নিয়ে অকারণে ঘোলাঘুরি করতে দেখা গেছে। অন্য সময়ের তুলনায় আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর তৎপরতা কম থাকলেও কাজে যারা বের হয়েছেন, তারা কারণ বলতে না পারলে পুলিশ তাদের বাড়ি পাঠিয়ে দিচ্ছি। লকডাউন কার্যকরে সকাল থেকে জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমান আদালত সকাল থেকে শহরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে। এসময় জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট টুম্পা ঘোষ শহরের বিভিন্ন স্থানে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ৮টি মামলায় ৭২০০ টাকা জরিমানা করেন।

এদিকে সকালে দ্রব্যমুল্য বাজার মনিটারিং করতে জেলা প্রশাসক মো: মিজানুর শহরের তবলছড়ি, রিজার্ভবাজার ও বনরুপা এলাকার বিভিন্ন বাজার পরিদর্শন করে মুল্য তালিকা প্রদর্শনসহ অতিরিক্ত দাম না রাখার নির্দেশ দেন।

এসময় জেলা প্রশাসক মোঃ মিজানুর রহমান বলেন, লকডাউনের প্রথম দিনে শহরের মধ্যে যে সকল বাজার ও কাচাবাজার ঘুরে দেখেছি দ্রব্যমূল্য ক্রেতাদের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে রয়েছে। স্থানীয় লোকজন সথেষ্ট পরিমানে লকডাউনে সারা দিয়েছে। সবাই মাক্স পরতে দেখা গেছে। আমি তবলছড়ি বাজার,রির্জাভ বাজার,বনরুপা বাজার ও ভেদভেদি বাজার সরেজমিনে ঘুরে দেখেছি দ্রব্যমূল সরকারের নির্দেশ মোতাবেক বিক্রি করা হচ্ছে। তবে কিছু কিছু অসাধু ব্যবসায়ি আছে যারা সুযোগে সৎ ব্যবহার করতে চায় তাদের আমি সর্তক করে দিয়েছি। তার পরও যদি কেউ অতিরিক্ত দাম নেয় তাহলে মাঠে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আছে তাদের জানালে সাথে সাথে ব্যবস্থা গ্রহন করবেন।


রাঙামাটি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions