মঙ্গলবার | ২০ অক্টোবর, ২০২০

রাঙামাটির মানিকছড়িতে পার্বত্য নাগরিক পরিষদের সদস্য সংগ্রহ অভিযান শুরু

প্রকাশঃ ২১ অগাস্ট, ২০২০ ০৯:০৩:০৯ | আপডেটঃ ১৯ অক্টোবর, ২০২০ ০৩:১২:০৫  |  ৫৪৮
সিএইচটি টুডে ডট কম, রাঙামাটি। শুক্রবার বিকেলে রাঙামাটি সদরের সাপছড়ি ইউনিয়নের মানিকছড়ি কাঠ ও জ্বালানী ব্যবসায়ী সমিতি অফিসের হল রুমে পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদ রাঙামাটি জেলার আওতাধীন মানিকছড়ি শাখার মত বিনিময় সভা ও সদস্য সংগ্রহ অভিযান অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

এতে পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ন সম্পাদক মোঃ আবু বক্কর সিদ্দিকীর সভাপতিত্বে ও স্টিয়ারিং কমিটির সদস্য মোঃ হাবিব আজমের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ও সদস্য সংগ্রহ অভিযানের উদ্ধোধন করেন পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির মহাসচিব ও বাঘাইছড়ি পৌরসভার সাবেক মেয়র আলমগীর কবির, বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি মোঃ সাব্বির আহম্মেদ, অর্থ সম্পাদক মোঃ সোলায়মান, নাগরিক পরিষদের মোঃ ইব্রাহিম, মোঃ নজরুল ইসলাম, হুমায়ন কবির, পার্বত্য চট্টগ্রাম মহিলা পরিষদের নেত্রী মোর্শেদা আক্তার, পার্বত্য চট্টগ্রাম ছাত্র পরিষদ নেতা মোঃ নাজিম আল হাসান, তাজুল ইসলাম, মামুনুর রশীদ, মোঃ সোহেল, মোঃ সুলতান, মোঃ মোস্তফা রাজু সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

সদস্য সংগ্রহ অভিযানের উদ্ধোধন ও প্রধান অতিথির বক্তব্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির মহাসচিব আলমগীর কবির বলেন সন্তু লারমা, প্রসিত খীসা পার্বত্য চট্টগ্রাম নিয়ে ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে, দেশদ্রোহী এসব সন্ত্রাসীদের ষড়যন্ত্র রুখতে পাহাড়ের সকল জনগোষ্ঠীকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। আদিবাসী ষড়যন্ত্র রুখে দিতে হবে, কুচক্রী মহলের আদিবাসী ইস্যু নিয়ে অপপ্রচার রুখতে হবে, দেশ প্রেমিক সকল নাগরিকদের এগিয়ে আসতে হবে, অপপ্রচারের জবাব দিতে হবে।

আলমগীর কবির আরো বলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদ রাঙামাটি জেলা শাখার আওতাধীন মানিকছড়ি এলাকায় সদস্য সংগ্রহ অভিযানের মাধ্যমে রাঙামাটিতে সংগঠনের কার্যক্রম আরো গতিশীল হবে।

অন্যান্য বক্তাগণ বলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদ একটি সেবা মূলক সংগঠন, এই সংগঠনের কার্যক্রম পাহাড়ের আনাচে কানাচে ছড়িয়ে পড়বে। এই সংগঠনের মাধ্যমেই পাহাড়ে আলো আসবে, পাহাড়ে শান্তির সু-বাতাস বইবে।

রাঙামাটি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions