শুক্রবার | ২৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
বেশিরভাগ কাউন্সিলর পদে সরকারি দলের নেতারাই বিজয়ী

খাগড়াছড়ি আওয়ামীলীগের নির্মলেন্দু চৌধুরী মেয়র পদে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত

প্রকাশঃ ১৬ জানুয়ারী, ২০২১ ০৬:২৮:২৩ | আপডেটঃ ২৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২১ ০৩:০০:০৩  |  ৩৫২
সিএইচটি টুডে ডট কম, খাগড়াছড়ি। শনিবার শান্তিপূর্নভাবে অনুষ্ঠিত সপ্তম পৌর পরিষদ নির্বাচনে জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নির্মলেন্দু চৌধুরী ‘নৌকা’ প্রতীকে বিজয়ী হয়েছেন। জেলা নির্বাচন অফিসার ও রিটার্নি কর্মকর্তা মো: রাজু আহমেদ ঘোষিত বেসরকারি ফলাফল অনুযায়ী ‘নৌকা’ প্রতীকে নির্মলেন্দু চৌধুরী  ৯ হাজার ৩২  ভোট এবং আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মো: রফিকুল আলম (বর্তমান মেয়র) ‘মোবাইল’ প্রতীকে  ৮ হাজার ৭’শ ৪৯ ভোট পেয়ে নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি হয়েছেন। এছাড়া ‘ধানের শীষ’ প্রতীকে বিএনপি প্রার্থী মো: ইব্রাহিম খলিল  ৪ হাজার ৩’শ ৮ ভোট পেয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছেন।

সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত ১৮ টি কেন্দ্রে প্রথমবারের মতো ‘ইভিএম’-এ অনুষ্ঠিত নির্বাচনে কোথাও কোন বড়ো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। দুপুর ২টার দিকে ৬ নং ওয়ার্ডের শালবন টেক্সটাইল ভোকেশনাল (মহিলা) কেন্দ্রে বিদ্রোহী প্রার্থী রফিকুল আলমের উপস্থিতিকে কেন্দ্র করে নৌকা’র সমর্থকদের সাথে মিনিট দশেক ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হলেও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী তা ত্বরিৎ নিয়ন্ত্রণ করে।

৯টি সাধারণ ওয়ার্ডের মধ্যে ১নং ওয়ার্ডে আওয়ামীলীগ নেতা অতীশ চাকমা (দ্বিতীয়বার) আগেই বিনা প্রতিদ্বন্ধীতায় নির্বাচিত হন। এছাড়া ২নং ওয়ার্ডে যুবলীগ নেতা মানিক পাটোয়ারী, ৩নং ওয়ার্ডে বিএনপি নেতা শাহ আলম (দ্বিতীয়বার), ৪নং ওয়ার্ডে আওয়ামীলীগ নেতা বাচ্চুমনি চাকমা, ৫নং ওয়ার্ডে ‘পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদ (পিসিএনপি)’ জেলা শাখার সভাপতি মো: আব্দুল মজিদ (দ্বিতীয়বার), ৬নং ওয়ার্ডে যুবলীগ নেতা রেজাউল ইসলাম, ৭নং ওয়ার্ডে যুবলীগ নেতা মংরে মারমা (দ্বিতীয়বার), ৮নং ওয়ার্ডে পৌর আওয়ামীলীগের সা: সম্পাদক পরিমল কর্মকার (দ্বিতীয়বার) এবং ৯নং ওয়ার্ডে পৌর আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রিটন তালুকদার নির্বাচিত হয়েছেন।

সংরক্ষিত তিনটি মহিলা কাউন্সিলর পদে শাহিদা আক্তার, উক্রাঞো মারমা নির্বাচিত হয়েছেন।

উল্লেখ, এবার খাগড়াছড়ি পৌরসভায় ৩৭ হাজার ৮৭ ভোট (পুরুষ ভোটার ২০ হাজার ৩’শ ৫১ এবং মহিলা ভোটার ১৬ হাজার ৭’শ ৩৬)

এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions