শনিবার | ২৮ নভেম্বর, ২০২০

লামায় হরি মন্দিরে চুরির অভিযোগ

প্রকাশঃ ৩১ অক্টোবর, ২০২০ ০৪:০৪:৩৩ | আপডেটঃ ২৮ নভেম্বর, ২০২০ ০৮:৪২:১৪  |  ১৩৬
সিএইচটি টুডে ডট কম, বান্দরবান। বান্দরবানের লামা উপজেলার ২নং সদর ইউপির মেরাখোলা হরি মন্দিরে ৩০ অক্টোবর শুক্রবার দিবাগত রাতের কোন এক সময় চুরির ঘটনা ঘটেছে।

মন্দির পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ডাঃ বিশ্বনাথ দে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, সকালে মন্দিরের সেবক শেফালি বসাক মন্দির পরিষ্কার করতে আসলে বিষয়টি তার প্রথমে নজরে আসে। সে সাথে সাথে বিষয়টি সকলকে জানায়। পরে চুরির বিষয়টি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মিন্টু কুমার সেন ও লামা থানা পুলিশকে অবহিত করা হয়।

মন্দির কমিটির সভাপতি সাধন সেন বলেন, চোররা মন্দিরের উত্তর পাশের দেয়াল টপকে প্রবেশ করে মন্দিরের মূল ফটকের তালা ভেঙ্গে থেকে ২টি দান বাক্স, ১টি ছোট স্বর্ণের মূর্তি (আনুমানিক ৪/৫ ভরি), ৩টি পিতলের মূর্তি (রাধা-গোবিন্দ মূর্তি), নারায়ণ মূর্তির গলার চেইন (দেড় ভরি), কানের দুল ১ জোড়া (৮ আনা), হাতের চুড়ি ১ জোড়া (১২ আনা) ও মন্দিরের ব্যবহৃত পিতলের জিসিনপত্র চুরি করে নিয়ে গেছে। গতরাতে আমরা লক্ষীপূজা শেষে মন্দির কমিটি রাত ১১টায় মন্দির হতে যাই, রাতের কোন এক সময় এই  চুরির ঘটনা ঘটেছে।

মন্দিরের সেবক শেফালী বসাক বলেন, এই মন্দিরে কখনো চুরি হয়নি,এই প্রথম চুরির ঘটনা ঘটেছে।

এদিকে ঘটনা শুনার পরপরই শনিবার সকালে লামা থানা পুলিশের পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ আলমগীর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এসময় পুলিশ চুরির আলামত ও চুরির বিষয়ে তথ্য সংগ্রহ করে,পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ আলমগীর বলেন, আমরা গুরুত্বের সাথে বিষয়টি তদন্ত করছি, সকল আলামত ও তথ্য নিয়ে চুরির রহস্যঘটনা উদঘাটনে কাজ করবে পুলিশ।

লামা থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন, মন্দিরে চুরির ঘটনাটি কে বা কারা করেছে তাদের দ্রুত গ্রেফতার করতে আমার থানার টিম কাজ করছে,আশাকরি খুব দ্রুত আসামীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হবে।


বান্দরবান |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions