শনিবার | ২০ এপ্রিল, ২০২৪

পাহাড়ে কৈশোর কিশোরী যুব বান্ধব স্বাস্থ্য সেবা শিক্ষা কার্যক্রম এগিয়ে নেয়ার আহবান

প্রকাশঃ ১৭ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০৫:১১:০১ | আপডেটঃ ১৯ এপ্রিল, ২০২৪ ০৬:৪৯:১২  |  ২০৯৩
সিইচটি টুডে ডট কম, রাঙামাটি। স্কুল পড়ুয়া কিশোরীদের স্বাস্থ্য সচেতনতা, ইভটিজিং বন্ধ, বাল্য বিবাহ রোধে বিদ্যালয় শিক্ষকদের কাজ করে যেতে হবে। তবে শিক্ষা থেকে ঝড়ে পড়ার হার কমবে। বিদ্যালয়ের শতভাগ শিক্ষার্থীর উপস্থিতি নিশ্চিত হবে। এতে শিক্ষার আলো পাবে আগামী প্রজন্ম। এজন্য প্রয়োজন সমন্বিত উদ্যোগ।

মঙ্গলবার সকালে রাঙামাটি জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে কৈশোর যুববান্ধব স্বাস্থ্য সেবা ও শিক্ষা  প্রকল্প সমাপনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন বক্তারা।

রিপ্রোডাকটিভ হেলথ সার্ভিসেস ট্রেনিং অ্যান্ড এডুকেশন প্রোগ্রাম (আরএইচস্টেপ) আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, পার্বত্য এলাকায় এখনো কিছু এলাকায় কুসংস্কার কাজ করে। বয়ঃসন্ধিকালে আতংকে অনেক কিশোরী বিদ্যালয়ে আসে না। এতে তাদের পড়াশুনার ব্যহত হয়। অনেক সময় বিদ্যালয়ে কোন কিশোরীর পিরিয়ড হলে তারা ভয় পেয়ে আতংকিত হয়ে পড়ে। এ থেকে উত্তোরণের জন্য শিক্ষকদের কাজ করতে হবে। বিদ্যালয়ে প্যাডের ব্যবস্থা রাখতে হবে এবং এটি ব্যবহার শেখাতে হবে। তাদের মনে ভয় দুর করতে হবে। কিশোররা যেন কোন কিশোরীকে ইভটিজিং না করে সে বিষয়ে সচেতনতা তৈরি করতে হবে।  এছাড়া বাল্য বিবাহ রোধে জন সচেতনতা তৈরি করতে হবে। আরএইচস্টেপ এর প্রকল্প শেষ হলেও সরকারী উদ্যোগে এ কার্যক্রম এগিয়ে নিতে হবে।

রাঙামাটি অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক এসএম শফি কামালের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. নুরুল হুদা, রাঙামাটি জেলা শিক্ষা অফিসার উত্তম খীসা,  রাঙামাটি ডেপুটি সিভিল সার্জন নিহার রঞ্জন নন্দী, আরএইচস্টেপের নির্বাহী পরিচারক সুরাইয়া সুলতানা, প্রোগ্রেসিভ নির্বাহী পরিচালক সুচরিত চাকমা, ঘাগড়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বাবুর্শে মারমা প্রমুখ।
 
 
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions