মঙ্গলবার | ১১ অগাস্ট, ২০২০

সারাদেশে নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে খাগড়াছড়িতে মানববন্ধন

প্রকাশঃ ২৫ নভেম্বর, ২০১৯ ০২:৩৬:৪৫ | আপডেটঃ ১০ অগাস্ট, ২০২০ ০৬:০৯:৩৪  |  ৬৮৮
সিএইচটি টুডে ডট কম, খাগড়াছড়ি। আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ উপলক্ষে আজ সোমবার সকালে খাগড়াছড়িতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। শহরের শাপলা চত্বরে মানববন্ধনের আয়োজন করে খাগড়াছড়ি নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ মঞ্চ।

আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ উপলক্ষে আয়োজিত ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধনে কয়েকটি এনজিও ও বেশ কয়েকটি সামাজিক সংগঠনের প্রতিনিধিরা অংশ নেন।

কাবিদাং এর নির্বাহী পরিচালক লালসা চাকমার সভাপতিত্বে মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক মধু মঙ্গল চাকমা, টিআইবি-সনাকের সদস্য অংসুই মারমা, খাগড়াছড়ি নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ মঞ্চের সদস্য সচিব সাংবাদিক আবু দাউদ, খাগড়াপুর মহিলা কল্যান সমিতি  (কেএমকেএস) এর সদস্য কাজল ত্রিপুরা, মারমা স্টুডেন্টস ফোরামের নিঅংগ্য মারমা, ত্রিপুরা স্টুডেন্টস ফোরামের দহেন ত্রিপুরা, জাবারাং এর গিতিকা ত্রিপুরা ও নিশি ত্রিপুরা প্রমূখ।

কর্মসূচিতে বক্তারা নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে প্রশাসনকে আরো কঠোর হওয়ার আহবান জানিয়ে   বক্তারা বলেন, দেশের প্রতিটি নারী ও শিশু সহিংসতার ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। নারী ও শিশুর উপর সহিংসতার মাত্রা, ধরণ ও নিষ্ঠুরতা বহুগুন বেড়েছে। এর মূল কারণ নারীকে মানুষ হিসেবে গণ্য না করার দৃষ্টিভঙ্গী ও আচরণ। নারী ও শিশুদের প্রতি সহিংসতা বন্ধ ও প্রতিরোধের দায়িত্ব শুধু সরকারের নয় আমাদের সবার। তাই সহিংসতা বন্ধ ও ন্যায়বিচারের দাবীতে সবাইকে সোচ্ছার থাকার আহ্বান জানান মানববন্ধন থেকে।

এ সময় তারা উল্লেখ করে বলেন, গত দশ মাসে জানুয়ারী থেকে অক্টোবর পর্যন্ত আইন ও সালিশ কেন্দ্র ও মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন কর্তৃক সংগৃহিত তথ্য অনুসারে ধর্ষনের শিকার হয়েছে ১২৫৩ জন নারী, ধর্ষনের চেষ্টা করা হয়েছে ২০০ জন নারীকে এবং যৌন হয়রানির শিকার হয়েছে ২২১ জন নারী। এদের মধ্যে দলবদ্ধ ধর্ষনের শিকার হয়েছে ২৫ জন, ধর্ষনের পর হত্যা করা হয়েছে ৬২ জনকে এবং আত্মহত্যা করেছেন ১০ জন। ধর্ষনের প্রতিবাদ করায় খুন হয়েছেন ৩ জন নারী ও ২ জন পুরুষ।

ধর্ষণের শিকার হয়েছে ৭৬৭ জন শিশু। ধর্ষনের চেষ্ঠা করা হয়েছে ১৩৫ জন শিশুকে। যৌন সহিংসতার শিকার হয়েছে ৮০ জন মেয়ে শিশু এবং ২৬ জন ছেলে শিশু।   

খাগড়াছড়ি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions