বৃহস্পতিবার | ১৮ অক্টোবর, ২০১৮
পানছড়িতে ইপসা’র ৩৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

পাহাড়ের উন্নয়নে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি সংস্থাগুলোকে এগিয়ে আসতে হবে : সতীশ চন্দ্র চাকমা

প্রকাশঃ ২০ মে, ২০১৮ ০৮:৪৫:৪৬ | আপডেটঃ ১৪ অক্টোবর, ২০১৮ ১২:৫৪:১৪  |  ৬১৪
সিএইচটি টুডে ডট কম, খাগড়াছড়ি। খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান সতীশ চন্দ্র চাকমা বলেছেন,সরকারের পাশাপাশি বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থাসমূহকেও এগিয়ে আসতে হবে পশ্চাদপদ পার্বত্য এলাকার উন্নয়নের জন্য। তিনি বলেছেন পার্বত্য এলাকার উন্নয়নে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা সমূহও বিরাট ভুমিকা পালন করে যাচ্ছে। তিনি বলেছেন সকলে সন্মিলিত ভাবে উন্নয়ন কর্মকান্ডের সুফল প্রত্যন্ত এলাকায় পৌছে দিতে হবে। তিনি ইপসা’র উন্নয়নের ভূয়শী প্রশংসা করে বলেছেন পানছড়িসহ পার্বত্য এলাকার প্রত্যন্ত এরাকায় ইপসা যেভাবে উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে এতে সকলকে সহযোগীতা করতে হবে।

তিনি আজ রোববার বিকেলে  স্থায়ীত্বশীল উন্নয়নের জন্য সংগঠন  ইপসা’র ৩৩তম প্রতিষ্ঠা বাষিকী উদযাপন উপলক্ষ্যে আয়োজিত আলোচনা সভা,ইফতার ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন।

ইপসা’র প্রকল্প ব্যবস্থাপক ও পার্বত্য চট্টগ্রামের ফোকাল পারসন মোঃ জসিম উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত সভায় অন্যান্যর মধ্যে বক্তব্য রাখেন পানছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আবুল হাশেম,পানছড়ি সদর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ নাজির হোসেন, লতিবান ইউপি চেয়ারম্যান কিরন ত্রিপুরা, পানছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক জয়নাথ দেব, যুগ্ম সম্পাদক বিজয় কুমার দেব, পার্বত্য চট্টগ্রাম শরনার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্সের চেয়ারম্যানের একান্ত সহকারী খগেন ত্রিপুরা, সাংবাদিক শাহজান কবির সাজু, মোঃ ইলিয়াছ, ইপসা’র কর্মকর্তা মিহির কান্তি ত্রিপুরা, উজ্জ্ল চাকমা, কিরন চাকমা, ইকবাল হোসেন, আজমুল মিজান,আব্দুল কাদের, বিউটি চাকমা প্রমূখ। ইপসা’র ৩৩তম প্রতিষ্ঠা বাষির্কীর ধারনা পত্র পাঠ করেন ইপসা’র প্রকল্প ব্যবস্থাপক বিলাস সৌরভ বড়–য়া।

পানছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আবুল হাশেম বলেছেন, ইপসা’র সাথে আমার যেন আতœার সর্ম্পক। ইপসা পানছড়ি উপজেলাসহ প্রত্যন্ত এলাকায় যে সকল উন্নয়ন কাজ করে যাচ্ছে তা এ এলাকার জন্য স্বরনীয় হয়ে থাকবে। তিনি যে কোন ক্ষেত্রে সবসময় ইপসা’র সাথে থাকবেন বলে আশ্বাস দেন। ইপসা’র ৩৩তম জন্মদিনের এ অনুষ্ঠানে পানছড়ি উপজেলায় কর্মরত ইপসা-ইউনিক,এসআরএইচআর, সমৃদ্ধি ও শো প্রকল্পের কর্মী বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। আলোচনা সভা শেষে পানছড়ি কলোনী পাড়া জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা ওয়াহিদূল ইসলাম  মোনাজাত পরিচালনা করেন।

এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions