মঙ্গলবার | ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

রামগড়ে ডাকাতির ঘটনায় স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতাসহ আটক ৪, টাকা ও স্বর্ণ উদ্ধার

প্রকাশঃ ১৬ অগাস্ট, ২০১৯ ১০:৪২:০৪ | আপডেটঃ ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০২:০০:৫৮  |  ২৪৮
সিএইচটি টুডে ডট কম, খাগড়াছড়ি। খাগড়াছড়ি জেলার রামগড় উপজেলার  কমপাড়া এলাকায় চাউল ব্যবসায়ী মো: ইউছুফ এর বাসায় দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনায় স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতাসহ ৪ ডাকাতকে আটক করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় উদ্ধার করা হয়েছে লুণ্ঠিত নগদ  দু লক্ষ ৫৭ হাজার টাকা ও ১৩ আইটেমের  সাড়ে ৪ ভরি স্বর্ণালংকার উদ্ধার করা হয়।  শুক্রবার ভোররাতে  এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে।

আটককৃতরা হচ্ছে, স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবকলীগের নেতা ও পৌরসভার তৈচালাপাড়ার নুরুল আমিনের ছেলে নজরুল ইসলাম(৩৯), নোয়াখালীর সুধারাম থানার পশ্চিম  শুলকিয়া চৌধুরিবাড়ির মৃত চৌধুরি মিয়ার ছেলে শাহ আলম প্রকাশ টুকু(৩৫), চট্টগ্রামের মীরসরাইয়ের মালিয়াইশ গ্রামে ধন গাজি  মাঝিবাড়ির আহসান উল্লাহ প্রকাশ নুরুজ্জামনের ছেলে নুরুন্নবী প্রকাশ নাজিম উদ্দিন(৩২) ও রামগড়ের তৈচালাপাড়ার মৃত আব্দুস সালামের ছেলে নুরল ইসলাম প্রকাশ নুর ইসলাম(৩৫)।

এদিকে, ডাকাতির ঘটনায় আটক নজরুল ইসলাম দলীয়  অনুমোদিত কোন কমিটির পদে নেই বলে জানিয়েছেন উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি রাসেল ফরায়েজী।

পুলিশ ও ডাকাতির শিকার গৃহকর্তা জানায়, শুক্রবার ভোর ৩টার দিকে ডাকাতরা কম পাড়ায় চাউল ব্যবসায়ী মো: ইউছুপের বাসায় হানা দেয়। ডাকাতরা বাসার পিছনের একটি দরজার লকার ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে। ডাকাতরা গৃহকর্তা ইউছুফকে হত্যার ভয় দেখিয়ে আলমিরার চাবি নিয়ে নগদ প্রায় তিন লক্ষ টাকা, প্রায় ৭ ভরি ওজনের বিভিন্ন স্বর্ণালংকার ও চারটি মোবাইল ফোন সেট লুটে নেয়।

ডাকাতি করে পালানোর সময় এলাকার পাহারাদারদের নজরে এলে তারা ডাকাতদের ধাওয়া করে। খবর পেয়ে পুলিশ তাৎক্ষণিকভাবে সাড়াশি অভিযানে নামে ডাকাতদের ধরতে। রামগড় সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সৈয়দ মো: ফরহাদের নেতৃত্বে থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) তারেক মো: আব্দুল হান্নান অটো রিকসাযোগে পালিয়ে যাওয়ার সময়  সোনাইপুল বাজার এলাকায়  তিন ডাকাত শাহ আলম, নাজিম ও নুর ইসলামকে আটক করেন। এসময় তাদের কাছ থেকে ডাকাতির নগদ দু লক্ষ ৫৭ হাজার টাকা ও ১৩ আইটেমের স্বর্ণালংকার উদ্ধার করা হয়। পরে আটককৃতদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী তৈচালাপাড়ার বাসা থেকে নজরুল ইসলামকে আটক করে পুলিশ।

রামগড় সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সৈয়দ মো: ফরহাদ জানান, আটককৃতরা আন্ত:জেলা ডাকাত দলের সদস্য। তাদের বিরুদ্ধে একাধিক ডাকাতির মামলা রয়েছে। ডাকাতির ঘটনায় জড়িত অন্যান্যদের ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে।

কমপাড়ায় ডাকাতির ঘটনায় বাসার গৃহকর্তা মো: ইউছুফ বাদি হয়ে রামগড় থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions