সোমবার | ১৮ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯

বিলাইছড়ি উপজেলায় সমাপনী পরীক্ষায় অনুপস্থিত ২৭ জন

প্রকাশঃ ১৮ নভেম্বর, ২০১৮ ১০:২৮:২১ | আপডেটঃ ১৮ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯ ১০:২২:০৫  |  ২৮১
সিএইচটি টুডে ডট কম, বিলাইছড়ি (রাঙামাটি)। সারাদেশের সাথে যথারীতি রবিবার (১৮ নভেম্বর) রাঙামাটির বিলাইছড়ি উপজেলায় প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা ২০১৮ শুরু হয়েছে।

উপজেলায় চলতি ২০১৮ শিক্ষাবর্ষে মোট চারটি ইউনিয়নের ৩টি পরীক্ষা কেন্দ্রে ছাত্র ৩৬১ জন ও ছাত্রী ২৯৬ জনসহ মোট ৬৫৭ জন প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায় অংশগ্রহনের কথা থাকলেও পরীক্ষায় অংশগ্রহন করে মাত্র ৬৩০ জন। এতে ছাত্র ৩৪৩ জন ও ছাত্রী ২৮৭ জন অংশগ্রহন করে। পরিসংখ্যান অনুযায়ী পরীক্ষায় মোট অনুপস্থিত থাকে ২৭ জন। যার মধ্যে ছাত্র ১৫ ও ছাত্রী ১২ জন অনুপস্থিত রয়েছে।

উপজেলা শিক্ষা অফিসার নিখিলেশ চাকমা জানান, চলতি শিক্ষাবর্ষে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায় অংশগ্রহনে ডি.আর ভুক্ত মোট শিক্ষার্থী ছিল ৬৫৭ জন। কিন্তু পরীক্ষায় অংশগ্রহন করেছে মাত্র ৬৩০ জন শিক্ষার্থী। এতে অনুপস্থিত থাকে ২৭ জন। যেসব শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহন করেনি তার কোন কারণ আমরা জানতে পারিনি। তবে উপজেলার দুর্গম বড়থলি ইউনিয়ন হতে ২১জন পরীক্ষার্থী ডি.আর ভুক্ত থাকলেও মাত্র ৪ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহন করেছে। অনুপস্থিত থাকে ১৭ জন।

এ বিষয়ে ৪নং বড়থলি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আতো মং মার্মা’র কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আর্থিক দৈন্যতার কারণে হয়ত অনেকে পরীক্ষায় অংশগ্রহন করতে পারেন নি । যেহেতু বড়থলি একটি দুর্গম এলাকা। রুমা ও বান্দবান হইয়া বিলাইছড়ি গিয়ে আবার সেখানে বাসা ভাড়াসহ থাকা-খাওয়া অনেক খরচের ব্যাপার। যা অভিভাবকগণ সে সব ব্যয়ভার বহন করতে অপারগ এমনটাই শুনেছি। তবে এ কারণে আমি মেম্বারদের সহায়তার কথা বলেছি। তবে সব মিলিয়ে দুর্গম অঞ্চলের যোগাযোগ সুবিধা বঞ্চিত দরিদ্র নাগরিক হিসেবে তারা প্রজন্মের শিক্ষা ব্যবস্থায় ব্যর্থ হচ্ছেন। এ কারণেই হয়তো শিক্ষার্থীরা পরীক্ষায় অংশ নিতে পারছে না।

রাঙামাটি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions