রবিবার | ১৯ অগাস্ট, ২০১৮

রাঙামাটিতে একজন পত্রিকা সম্পাদকের বিরুদ্ধে অটোরিক্সা চালক সমিতির সদস্যর কুরুচিপুর্ণ অপপ্রচার

প্রকাশঃ ১৬ এপ্রিল, ২০১৮ ০৮:৪৮:৪২ | আপডেটঃ ১৭ অগাস্ট, ২০১৮ ০১:০৯:২৫  |  ৮১২

সিএইচটি টুডে ডট কম, রাঙামাটি। মিথ্যা,বানোয়াট আর ভিত্তিহীন অভিযোগ তুলে সোমবার রাঙামাটি শহরের অটোরিক্সা চালকদের কাছে একজন পত্রিকা সম্পাদকের ছবি প্রদর্শন করে তাকে টেক্সীতে না তোলার জন্য কুরুচিপূর্ণ প্রচারণা চালিয়েছে অটোরিক্সা চালক সমিতির একজন সদস্য। তিনি এই অপপ্রচার চালানোকালে অটোরিক্সা চালকদের কাছে,এটি চালক সমিতির সিদ্ধান্ত বলে জানালেও,অটোরিক্সা চালক সমিতির সভাপতি পরেশ মজুমদার জানিয়েছেন,এই রকম কোন সিদ্ধান্ত চালক সমিতি নেয়নি,নেয়ার প্রশ্নই আসেনা। তিনি বিষয়টি খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়ে জানান,কারো ব্যক্তিগত ক্ষোভের কারণে সংগঠনকে ব্যবহার করার প্রয়াস দু:খজনক।’

অটোরিক্সা আরোহী সোহেল জানিয়েছেন, সোমবার দুপুর বারোটার সময় তবলছড়ি থেকে নিউ কোর্ট বিল্ডিং যাওয়ার সময় শহরের বনরূপা চত্বরে একজন অটোরিক্সা থামিয়ে একটি স্টুডিওর প্যাকেট থেকে দৈনিক পার্বত্য চট্টগ্রাম সম্পাদক ফজলে এলাহীর ছবি বের করে চালককে বলেন, সমিতির সিদ্ধান্ত এই ব্যক্তিকে টেক্সীতে তোলা যাবেনা। এসময় তিনি সম্পাদক ফজলে এলাহীর বিরুদ্ধে ওই অটোরিক্সা চালককে ‘আপত্তিকর’ কিছু অভিযোগও বর্ণণা করেন। প্রায় একই সময় ওই পথ দিয়ে যাওয়া,অটোরিক্সা আরোহি দীপ,মিশুসহ অসংখ্য যাত্রীও এই দৃশ্য দেখে হতবাক হন।

এই সময় দৈনিক পার্বত্য চট্টগ্রামের প্রতিবেদক সাইফুল বিন হাসান ওই স্থানে গেলে, অটোরিক্সা চালক সমিতির কার্যকরি সদস্য পরিচয় দেয়া আবুল হাসেম আবু বলেন, আমাদের সমিতির কার্যকরি সমিতির ১৩ জন সদস্যের সবার সম্মতিতে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

তাৎক্ষনিকভাবে অটোরিক্সা চালক সমিতির সভাপতি পরেশ মজুমদারকে ওই স্থানে  নিয়ে আসা হলে,ততক্ষণে সটকে পড়েন সকাল থেকেই অপপ্রচারে নিয়োজিত বাবু।
এসময় বনরূপা চত্বরে দাঁড়িয়েই পরেশ মজুমদার জানান, এই রকম কোন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি। কেউ ব্যক্তিগত আগ্রহে বা ঈর্ষা থেকে এটা করেছে। সমিতি কারো ব্যক্তিগত কাজের দায় নিবেনা। তিনি বিষয়টি  সমিতির নেতৃবৃন্দের সাথে আলাপ করে সিদ্ধান্ত নেয়ার কথা জানান।

এই বিষয়টি তাৎক্ষনিকভাবে সাবেক পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার, রাঙামাটির জেলা প্রশাসক এসএম মামুনুর রশীদ,পুলিশ সুপার আলমগীর কবিরসহ প্রশাসনের দায়িত্বশীল ব্যক্তিদের অবহিত করেন দৈনিক পার্বত্য চট্টগ্রাম সম্পাদক ফজলে এলাহী।

এসময় দীপংকর তালুকদার বিষয়টিকে ‘অত্যন্ত দু:খজনক এবং গর্হিত কাজ’ হিসেবে মন্তব্য করে বিষয়টি সম্পর্কে খোঁজ খবর নিবেন বলে আশ্বস্ত করেন। প্রশাসনের পক্ষ থেকেও বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে নেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার।

এদিকে এই ঘটনার প্রতিবাদে দৈনিক পার্বত্য চট্টগ্রামের সম্পাদক,প্রকাশক,বার্তা সম্পাদক,প্রধান প্রতিবেদক,মফস্বল সম্পাদকের নেতৃত্বে পত্রিকাটির সাংবাদিকরা হ্যাপির মোড় থেকে পায়ে হেঁটে পত্রিকার কার্যালয়ে যান। এসময় এই বিষয়ে নিজেদের করণীয় সম্পর্কেও আলোচনা করেন তারা।

এইদিকে দৈনিক পার্বত্য চট্টগ্রাম সম্পাদকের ছবি অটোরিক্সা চালকদের  দেখিয়ে উস্কানি সৃষ্টির চেষ্টার প্রতিবাদ জানিয়েছেন রাঙামাটি প্রেসক্লাবের সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন রুবেল ও  সাধারন সম্পাদক আনোয়ার আল হক,রাঙামাটি রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি সুশীল প্রসাদ চাকমা ও সাধারন সম্পাদক ফজলুর রহমান রাজন। এই ঘটনার প্রতিবাদে তাৎক্ষনিকভাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দা জানিয়েছেন অসংখ্য মানুষ।

তারা এই ঘটনাকে ‘সাংবাদিকতা ও ব্যক্তি স্বাধীনতার উপর চূড়ান্ত ও চরম হস্তক্ষেপ হিসেবে চিহ্নিত করে বলেন, এর মাধ্যমে অটোরিক্সা চালক সমিতির দুয়েকজন নেতা নিজেদের হীন ব্যক্তিস্বার্থে সংগঠনকে ব্যবহার করে অটোরিক্সা চালক ও শহরবাসিদের মুখোমুখি দাঁড় করানোর পাঁয়তারা করছেন। 

পৌর মেয়রের নিন্দা
এদিকে দৈনিক পার্বত্য চট্টগ্রামের সম্পাদক ফজলে এলাহীর ছবি অটোরিক্সা চালকদের  দেখিয়ে উস্কানি দেয়ার সাথে জড়িতদের চিহ্নিত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন রাঙামাটি পৌরসভার মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী। তিনি বলেছেন, একটি জনপ্রিয় পত্রিকার সম্পাদকের ছবি প্রদর্শন করে উস্কানি সৃষ্টিদাতাদের বিরুদ্ধে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া উচিত। তিনি বলেন,যে বা যারা ব্যক্তি স্বার্থে সংগঠনের পরিচয়কে ব্যবহার করে তারা রাঙামাটিবাসির শত্রু।


যা বললেন ফজলে এলাহী
এদিকে ‘অপরাধীর’ মতো ছবি প্রদর্শন করে অপপ্রচারের ঘটনার বিস্ময় ও ক্ষোভ প্রকাশ করে দৈনিক পার্বত্য চট্টগ্রাম সম্পাদক ফজলে এলাহী বলেছেন, একজন  ব্যক্তি একটি সংগঠনের পরিচিতি ব্যবহার করে এইভাবে নোংরা কদর্য অপপ্রচারে মেতে উঠতে পারে,যা অবিশ্বাস্য। তিনি বলেন, শুধু এই দিইন নয়,একই ব্যক্তি এর আগেও অনলাইনে নিজে ও নিজের পোষ্য কিছু মানুষ দিয়ে কুরুচিপূর্ণ প্রচারণা চালিয়েছে। দিনের পর পর এসব সহ্য করা অসম্ভব। রাঙামাটির নিরিহ অটোরিক্সা চালকদের আবেগ ও সমর্থনকে অপব্যবহার করে এমন অশ্লীল ও কুরুচিপূর্ণ কাজের বিরুদ্ধে রাঙামাটিবাসিকেই রুখে দাঁড়াতে হবে।


 

রাঙামাটি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions