শনিবার | ২২ জুন, ২০২৪

ব্রেন টিউমারে আক্রান্ত লংগদুরের শিক্ষক বিত্ত বিকাশ বাঁচতে চায়

প্রকাশঃ ২৩ মে, ২০২৪ ০৩:৪২:৪৬ | আপডেটঃ ২২ জুন, ২০২৪ ০৪:৫৩:৪১  |  ২৭৭

সিএইচটি টুডে ডট কম, লংগদু (রাঙামাটি)।ব্রেন টিউমারে আক্রান্ত লংগদু বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের গণিত বিষয়ের শিক্ষক বিত্ত বিকাশ চাকমা বাঁচতে চান। তিনি পার্বত্য জেলা রাঙামাটির লংগদু উপজেলার সদর ইউনিয়নের তিনটিলা এলাকার মৃত বিপিন চন্দ্র চাকমার ছেলে

 

জানা গেছে, চলতি বছরের ১৪ এপ্রিল গুরুতর অসুস্থ হলে তাকে পরিবারের সদস্যরা চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন এবং পার্শ্ববর্তী এপিক হেলথ কেয়ার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে এমআরআই সিটি স্ক্যান করলে ব্রেন টিউমার শনাক্ত হয়। পরবর্তীতে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হলে চিকিৎসকরা তাকে অতিদ্রুততার সাথে চিকিৎসা গ্রহণের কথা জানান। অবস্থায় বিত্ত বিকাশ চাকমা (৪৮)' উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রায় ১৫ লক্ষ টাকা প্রয়োজন

 

মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য, একটু সহানুভূতি কি মানুষ পেতে পারে না”-ভুপেন হাজারিকার গানটি প্রায় সময় শোনা গেলেও গানের কথার সাথে বর্তমান সমাজের বাস্তবতার মিল নেই বললেই চলে। মানবতা আজকাল বইয়ের পাতায় গল্প কিংবা কবিতায় শোভা পেলেও মানুষের জন্য মানুষের উদার মানবতা তেমন লক্ষ্য করা যায় না। কিন্তু শিক্ষক বিত্ত বিকাশের জন্য মানবতার হাত বাড়িয়ে দিয়ে স্বেচ্ছায় এগিয়ে আসা বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সামাজিক সংগঠন সহ একঝাঁক তরুন তরুণী তার জ্বলন্ত উদাহরণ। শিক্ষক বিত্ত বিকাশের জন্য তাদের মানবিক কর্মকান্ড দেখে মনে হয় মানবতা আজও যেন পৃথিবীতে বেঁচে আছে। মানুষের জন্য মানুষের সহানুভূতি আজও যেন কাজ করে

 

সুনাম দক্ষতার সঙ্গে দীর্ঘ শিক্ষকতা জীবনের ২৫ বছর পার করে পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারী বিত্ত বিকাশ এখন অর্থাভাবে চিকিৎসা সংকটে নিজ বাসায় শয্যাসায়ী

 

বর্তমানে তিনি যে চিকিৎসকের পরামর্শ তত্বাবধানে রয়েছেন তিনি জানান, রোগীর অবস্থা খুবই গুরুতর, যতদ্রুত সার্জারী করা সম্ভব তত দ্রুতই রোগীকে সুস্থ করে তোলা সম্ভব হবে। তবে সময় বেশি পেরিয়ে গেলে অনিশ্চয়তায় পড়তে হবে বলে জানান চিকিৎসক

 

এদিকে শিক্ষক বিত্ত বিকাশের চিকিৎসার জন্য বিভিন্ন ভাবে যে অনুদান সংগ্রহ করা হচ্ছে বা হয়েছে তা অতি নগণ্য। তার চিকিৎসার জন্য প্রায় ১৫লাখ টাকার প্রয়োজন। যা সংগ্রহ করতে না পারলে তার চিকিৎসা সম্পন্ন করা অসম্ভব

 

ব্রেন টিউমারে আক্রান্ত বিত্ত বিকাশ চাকমা গৃহিণী টর্নি চাকমা দম্পতির একমাত্র সন্তান রাজশাহী মেডিকেল কলেজের এমবিবিএস ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী প্রাচুর্য্য চাকমা বলেন, ছোট থেকে দেখে এসেছি আমার বাবা অতি সহজ সরল সাধারণ জীবনযাপন করে এসেছেন। তাই পারিবারিক আর্থিক স্বচ্ছলতা ভালো না হওয়ায় বাবার চিকিৎসা প্রায় বন্ধ রয়েছে। চিকিৎসকরা বলেছেন সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা করাতে হলে ভর্তি চিকিৎসা শুরু করতে অনেক সময় লাগবে। তাই বাবাকে দ্রুত চিকিৎসার জন্য বেসরকারি হাসপাতালে সার্জারী করতে প্রায় ১৫লাখ টাকার প্রয়োজন। যা সকলের সহযোগিতা ছাড়া আমাদের পক্ষে অসম্ভব। এদিকে আমার মেডিকেলে পড়াশোনা নিয়েও এখন সঙ্কায় আছি। আমি স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, প্রশাসন সরকারি ভাবে বাবার চিকিৎসা সহায়তার জন্য বিনীত অনুরোধ করছি

 

স্বেচ্ছায় এগিয়ে আসা তরুন তরুণীসহ বিত্ত বিকাশের আত্মীয় স্বজন, সহকর্মী শিক্ষার্থীরা সমাজের বিত্তবানদের কাছে চিকিৎসা সম্পন্ন করতে আর্থিক সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন। মানুষ গড়ার কারিগরকে বাঁচাতে আপনার একটু সহানুভূতি আর ইচ্ছা শক্তিই যথেষ্ট

 

সহযোগিতা যোগাযোগ:

প্রাচুর্য্য চাকমা- ০১৬৪৩৫১৭২৩২ (বিকাশ)

 

রাঙামাটি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions