বুধবার | ২১ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪

চিকিৎসাধীন ২৪ দিন থাকার পর মারা গেলেন পরী চাকমাও

প্রকাশঃ ২৮ নভেম্বর, ২০২৩ ১০:১০:৩৮ | আপডেটঃ ১৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪ ০৪:৪৪:২২  |  ৪৬২
সিএইচটি টুডে ডট কম, রাঙামাটি। রাঙামাটিতে সড়ক দুর্ঘটনায় বাম পা হারিয়ে গুরুতর আহত হয়ে ২৪ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর মারা গেছেন পরী চাকমা (৪২)। মঙ্গলবার (২৮ নভেম্বর) দুপুরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান পরী চাকমা।

মারা যাওয়া পরী চাকমার দেবর মুনিক্কো চাকমা মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, ‘দুপুর ১২টার দিকে চমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় পরী চাকমা মারা গেছেন।’ চমেক হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ নুরুল আলম আরিফও মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে, গত ৪ নভেম্বর বেলা আড়াইটায় রাঙামাটি জেলা শহরের ভেদভেদী বাজারে দাঁড়িয়ে থাকা একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশাকে ধাক্কা দেয় যাত্রীবাহী বাস। বাসের ধাক্কায় অটোরিকশার দুই যাত্রী নিহত হন,  আহত হন চালকসহ চারজন। এ ঘটনার পর অটোরিকশার দুই যাত্রীকে রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্মরত চিকিৎসক দুজনকে মৃত ঘোষণা করে। অটোরিকশা চালককে রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও গুরুতর আহত তিন জনকে নেওয়া হয় চমেক হাসপাতালে। হাসপাতালে ২৪ দিন চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় মারা যান পরী চাকমাও। সড়ক দুর্ঘটনায় এ পর্যন্ত মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়ালো তিন জনে।

নিহতরা হলেন- পরী চাকমা (৪৮) ও গুরিমিলে চাকমা (৫০) এবং সর্বশেষ মারা যাওয়া পরী চাকমা (৪২)। আহত হয়েছিলেন চালক পিন্টু চাকমা (২২), যাত্রী রিপন চাকমা (৪০) ও রিকন চাকমা (২৬)। আহত-নিহত সকলেই রাঙামাটি সদর উপজেলার সাপছড়ি ইউনিয়নের যৌথ খামার এলাকার বাসিন্দা।

এদিকে, ঘটনার পরদিন ৫ নভেম্বর নিহত গুরিমিলে চাকমার ভাই রাঙামাটির কোতোয়ালি থানায় মামলা দায়েরের পর ৮ নভেম্বর চট্টগ্রামের পাঁচলাইশ থানা এলাকা থেকে ঘাতক বাসচালক নুরুল আবছারকে গ্রেফতার করে রাঙামাটির পুলিশ। সেই মামলায় আবছার এখন কারাগারে রয়েছে।


রাঙামাটি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions