বুধবার | ০৫ অক্টোবর, ২০২২

বান্দরবানে খুনের মামলায় একজনকে মৃত্যুদন্ড

প্রকাশঃ ০৪ অগাস্ট, ২০২২ ১২:২৪:২৭ | আপডেটঃ ০৪ অক্টোবর, ২০২২ ০৩:৩৪:৪২  |  ৬৩৯
সিএইচটি টুডে ডট কম, বান্দরবান। বান্দরবানে এক বিদ্যালয়ের শিক্ষককে খুনের অপরাধে প্রথমবারের মত একজনকে মৃত্যুদন্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত। ৪আগস্ট (বৃহস্পতিবার) বিকেলে বান্দরবান জেলা অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালত এর বিচারক মো:আবু হানিফ এই মৃত্যুদন্ডের আদেশ প্রদান করে।

মামলার বিবরণীতে জানা যায়, বান্দরবানের জেলার রুমা উপজেলার পাইন্দু ইউনিয়নের বাসিন্দা ক্যঅং প্রু মারমা এর পুত্র মংরে অং মারমা বাদী হয়ে তার ছোট ভাই (শিক্ষক) নুশৈ মার্মাকে গুলি করে হত্যার অভিযোগে ৪জনকে আসামী করে ২০১৭সালের জুলাই মাসের ২৭তারিখ রুমা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পরে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মোঃ শরিফুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। সুরতহাল ও ময়না তদন্ত প্রতিবেদন পর্যালোচনা পূর্বক এবং সাক্ষীদের জবানবন্দী ও ধৃত তিনজন আসামী যথাক্রমে মংসাইহ্লা মারমা, হ্লাসিংমং মার্মা ও ক্যংঅংপ্রু মার্মার প্রদত্ত দোষ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী (প্রকৃত পক্ষে আসামী হ্লাসিংমং মারমা দোষ স্বীকার করেন) পর্যালোচনা করে শুধুমাত্র আসামী হ্লাসিংমং মারমার বিরুদ্ধে ভিকটিম নুশৈমং মার্মাকে গুলি ও মারধর করে খুন করার অপরাধে উক্ত আসামীর বিরুদ্ধে বিচার প্রার্থনায় ঞযব চবহধষ ঈড়ফব, ১৮৬০ এর ৩০২ ধারার অধীনে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

পরে আসামী মংসাইহ্লা মারমা অন্য ঘটনায় নিহত হওয়ায় এবং আসামী মংবাসিং মারমা ও ক্যঅংপ্রু মারমা ঘটনায় সংশ্লিষ্টতা নেই মর্মে উল্লেখ করে তাদেরকে মামলা থেকে অব্যাহতির প্রার্থনা করেন। এদিকে দীর্ঘ সময় যাচাই বাচাই আর স্বাক্ষীদের স্বাক্ষ্য প্রমানের ভিত্তিতে আদালত হ্লাসিংমং মারমাকে মৃত্যুদন্ড এবং এক লক্ষ টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে ৩বছর সশ্রম কারাদন্ড প্রদানের আদেশ প্রদান করে।

বান্দরবান জেলা ও দায়রা জজ আদালতের প্রশাসনিক কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মো.কামরুল হাসান তথ্যটি নিশ্চিত করে জানান, এক শিক্ষককে খুনের ঘটনার দায়ে বান্দরবান জেলার রুমা উপজেলার পাইন্দু ইউনিয়নের বাসিন্দা ক্যঅং প্রু মারমা এর পুত্র হ্লাসিংমং মারমাকে মৃত্যুদন্ডের আদেশ প্রদান করেছে আদালত।

তিনি আরো জানান, পেনাল কোড ১৮৬০ এর ৩০২ ধারার অপরাধে আসামীকে মৃত্যুদন্ড এবং এক লক্ষ টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে ৩বছর সশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয় এবং মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত আসামী হ্লাসিংমং মারমা এর মৃত্যু নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত তার গলায় ফাসিঁর দড়ি ঝুলিয়ে রাখার নির্দেশ দেয় আদালত। বান্দরবান জেলা ও দায়রা জজ আদালতের প্রশাসনিক কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মো.কামরুল হাসান আরো জানান, বান্দরবান আদালতে খুনের অপরাধে সাজা হিসেবে প্রথমবারেরমত মৃত্যুদন্ড এর আদেশ এটি।

বান্দরবান |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions