বুধবার | ২৯ জুন, ২০২২

বান্দরবানে নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস উদযাপন

প্রকাশঃ ২৮ মে, ২০২২ ০৬:৪৫:২৯ | আপডেটঃ ২৮ জুন, ২০২২ ০৯:০৪:৪০  |  ১৭৪
সিএইচটি টুডে ডট কম, বান্দরবান। “ মা ও শিশুর জীবন বাঁচাতে,স্বাস্থ্য কেন্দ্রে হবে যেতে ” এই প্রতিপাদ্যকে সামনে নিয়ে বান্দরবানে নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস উদযাপন করা হয়েছে।

২৮মে (শনিবার) সকালে বান্দরবান সদর হাসপাতালের আয়োজনে নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস উদযাপন উপলক্ষে হাসপাতাল প্রাঙ্গনে আয়োজন করা হয় এক আলোচনা সভার।

এসময় সভায় বান্দরবান সদর হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা: মংটিং ঞো, সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আর এম ও) ডা: এস এম ইকবাল হোসাইন, গাইনি বিশেষজ্ঞ ডা: নাজনীন আহম্মেদ,গাইনি বিশেষজ্ঞ ডা: শাহানা রহমান, জাতিসংঘ জনসংখ্যা তহবিল (ইউএনএফপিএ) এর জেলা কর্মকর্তা ধনরঞ্জন ত্রিপুরাসহ হাসপাতালের কর্মচারী,বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্যবিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ।

এসময় বক্তব্য রাখতে গিয়ে সদর হাসপাতালের গাইনি বিশেষজ্ঞ ডা: নাজনীন আহম্মেদ বলেন, নিরাপদ মাতৃত্ব হচ্ছে এমন একটি পরিবেশ যাতে করে একজন নারী তার নিজ সিদ্ধান্তে— গর্ভবতী হওয়ার পর গর্ভ ও প্রসব সংক্রান্ত জটিলতা ও মৃত্যু থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় সকল সেবা নিশ্চিতভাবে পেতে পারে। এসময় বক্তারা আরো বলেন, নিরাপদ মাতৃত্ব নিশ্চিত করতে মানসম্মত গর্ভকালীন সেবা (প্রসবপূর্ব), নিরাপদ প্রসব ব্যবস্থা ,জরুরী প্রসূতি সেবা ,প্রসব পরবর্তী সেবা এবং প্রসব পরবর্তী পরিবার পরিকল্পনা পদ্ধতিসমূহ ও সেবাসমুহের উপর সবাইকে জোর দিতে হবে। এসময় তিনি আরো বলেন, প্রতি বছরের মাতৃ স্বাস্থ্যের গুরুত্ব বিবেচনা করে বিভিন্ন প্রতিপাদ্য বিষয় নির্ধারণ করে এই  নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস উদযাপন করা হয়ে থাকে, আর এবার “ মা ও শিশুর জীবন বাঁচাতে,স্বাস্থ্য কেন্দ্রে হবে যেতে ” এই প্রতিপাদ্যকে সামনে নিয়ে সবাইকে একযোগে কাজ করতে হবে।

এসময় বক্তব্য রাখতে গিয়ে বান্দরবান সদর হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা: মংটিং ঞো বলেন, প্রাথমিক জরুরি প্রসূতি সেবা কার্যক্রম সকল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স-এ এবং জরুরী প্রসূতি সেবা কার্যক্রম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ সকল জেলা হাসপাতাল,সকল সরকারী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, এমসিডব্লিউসি-এ জোরদার করা হয়েছে। হতদরিদ্র গর্ভবতী মায়েদের নিরাপদ প্রসব সেবা নিশ্চিতকল্পে মাতৃস্বাস্থ্য ভাউচার স্কীম কার্যক্রম বর্তমানে দেশের ৪১টি জেলার ৫৫টি উপজেলায় চালু আছে। তৃণমূল পর্যায়ে গর্ভবতী মায়েদের প্রসবপূর্ব,প্রসবকালীন ও প্রসব পরবর্তী সেবা নিশ্চিত করার জন্য  (স্বাস্থ্য সহকারী,পরিবার কল্যাণ সহকারী ও সিএইচসিপি) কমিউনিটি স্কীলড্ বার্থ এ্যাটেনডেন্ট (সিএসবিএ) প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে।

কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে জাতীয় গাইড লাইন তৈরী, গভর্বতী মায়েদের টিকা গ্রহনে নিদের্শনা ও লেবার রুম প্রটোকল হালনাগাদ করা হয়েছে আর এএনসি ও পিএনসি কার্ডে সকল স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানের এএনসি কর্ণারের মোবাইল নম্বর সংযুক্ত করা হয়েছে যাতে মায়েরা কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে সেবা গ্রহণ করতে পারে। এসময় তিনি মা ও শিশুর সুন্দর ভবিষ্যত গড়তে সবাইকে স্বাস্থ্য কেন্দ্রে যাওয়া এবং সরকারি সেবা বিনামুল্যে গ্রহণের আবেদন জানান।


বান্দরবান |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions