বুধবার | ২৯ জুন, ২০২২
বান্দরবানে

থানচিতে সড়ক দুর্ঘটনায় ৩পর্যটকের মৃত্যু, আহত ৬

প্রকাশঃ ২৬ মে, ২০২২ ১১:২৩:৩০ | আপডেটঃ ২৮ জুন, ২০২২ ০৫:৫৩:২২  |  ২৪৯
সিএইচটি টুডে ডট কম, বান্দরবান। বান্দরবানের থানচির জীবন নগরে পর্যটকবাহী একটি মাইক্রোবাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে খাদে পড়ে যাওয়ার ঘটনায় ৩জন পর্যটকের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে ঘটনাস্থলে মারা গেছে মঞ্জুরুল ইসলাম (৩৮)।

এরপরে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে বান্দরবান সদর হাসপাতালে আনার পথে প্রথমে মারা যায় হামিদুল  ইসলাম (৩৫) এবং পরে জয়নাল (৩০) নামে আরেকজন ।

দুর্ঘটনায় ৬জন আহত হয়েছে, হতাহতরা সবাই বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) এর নিরাপত্তা শাখার কর্মচারী।

এদিকে দুর্ঘটনার পর উদ্ধারকৃতদের বান্দরবান সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় এম্বুলেন্সযোগে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। দুর্ঘটনায় গুরুতর আহতরা হলেন মিলন, ফারুক, রাজিব, ফয়সাল। প্রাথমিক আহতরা হলেন আব্দুল মালেক ও ওহিদুজ্জামান।

বান্দরবান জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো.কায়েসুর রহমান জানান, দুর্ঘটনার সংবাদ পেয়ে আমরা বিস্তারিত খবর সংগ্রহ করি এবং বিকেল ৩টায় জেলা প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় আহত সবাইকে এম্বুলেন্সযোগে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করি। তিনি আরো জানান, নিহত ৩জনের লাশ বান্দরবান সদর হাসপাতালের মর্গে রয়েছে।   

প্রসঙ্গত, ২৬মে (বৃহস্পতিবার) বান্দরবান সদর থেকে থানচি উপজেলায় বেড়াতে যাওয়ায় সময় বলীপাড়ার জীবননগর এলাকার ঢালুতে নামতে গিয়ে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ঢাকা এর নিরাপত্তা শাখার কর্মচারীদের বহনকারী একটি মাইক্রোবাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের পাশে গভীর জঙ্গলে পড়ে যায়। পরে দুর্ঘটনার সংবাদ পেয়ে বিজিবি,পুলিশ, ফায়ার সার্ভিসের সদস্য এবং স্থানীয়রা ঘটনাস্থল থেকে হতাহতদের উদ্ধার করে ।

থানচি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুদীপ রায় জানান, সকাল ১১টায় জীবননগর এলাকার ঢালুতে নামতে গিয়ে একটি মাইক্রোবাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের পাশে গভীর জঙ্গলে পড়ে যায় এবং হতাহতদের উদ্ধার করে পুলিশ ও স্থানীয়রা,আর এই দুর্ঘটনায় ৩জন মারা গেছে এবং ৬জন আহত হয়েছে। তিনি আরো জানান, এই বিষয়ে আইনগত কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে ।


বান্দরবান |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions