রবিবার | ০৯ মে, ২০২১

লকডাউনে কর্মহীন ৫শ পরিবারকে মানবিক সহায়তা প্রদান করলেন বেজা চেয়ারম্যান

প্রকাশঃ ১৯ এপ্রিল, ২০২১ ০৪:৫৭:৩২ | আপডেটঃ ০৯ মে, ২০২১ ১০:০০:৪৯  |  ২০২
সিএইচটি টুডে ডট কম, রাঙামাটি। বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চলের  (বেজা) নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী বলেছেন, করোনা ভাইরাস সংক্রামণের সমস্যা এটা কোন সমাজ বা রাষ্ট্র ভিত্তিক নয়, এটা একটি গ্লোবাল  সমস্যা। সারা পৃথিবী এই সমস্যাটির সামাজিক অর্থনৈতিক স্বাস্থ্যগত চ্যালেঞ্জ গুলো মোকাবেলা  করছে,  বাংলাদেশও  তার ব্যাতিক্রম নয় আমরাও এই সমস্যার মোকাবেলা করছি।

তিনি আরো বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামে আগে পিসি আর ল্যাবরেটরির সুবিধা ছিলো না তা বর্তমানে করা হয়েছে। সেন্ট্রাল অক্সিজেন ও আইসিইউ স্থাপনের কাজ চলছে,  সরকারের যে এই অঞ্চলের প্রতি নজর আছে এটি তারই প্রমান। সবাই আন্তরিকভাবে কাজ করলে কোন সমস্যা সমস্যাই থাকবে না।

আজ সোমবার সকালে রাঙামাটি ও কাউখালী  উপজেলার পাঁচ শতাধিক কর্মহীন পরিবারকে ত্রাণ সহায়তা প্রদান কার্যকমের উদ্বোধন করতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের  বাংলাদেশ অর্থনৈতিক  অঞ্চল কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান ও সিনিয়র সচিব পবণ চৌধুরী এ কথা বলেন।

চট্রগ্রামের টি কে গ্রুপের সৌজন্যে রাঙামাটি সার্কিট হাউসে মানবিক সহায়তা প্রদান কালে অন্যান্যের  মধ্যে  অতিরিক্ত  জেলা প্রশাসক  সার্বিক  মো  মামুন , রাঙামাটির সিভিল সার্জন বিপাশ খীসা, সদর উপজেলা  নির্বাহী অফিসার ফাতেমা তুজ জোহরা উপমা  উপস্থিত ছিলেন। 

মানবিক সহায়তার মধ্যে ছিলো নগদ পাচশত টাকা, চাল ১০ কেজি,  ডাল ১ কেজি, তেল ১ লিটার।

পরে বিকালে জেলা প্রশাসন কার্যালয়ে রাঙামাটিতে করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা ও অন্যান্য সরকারি কার্যক্রম বিষয়ক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সিনিয়র সচিব পবণ চৌধুরী ছাড়াও জেলা প্রশাসক মো: মিজানুর রহমান, পুলিশ সুপার মীর মোদাদছছের হোসেন, সিভিল সার্জন ডা: বিপাশ খীসা, রাঙামাটি পৌরসভার মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরীসহ প্রশাসনের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তারা বক্তব্য রাখেন।

এসময় সবাইকে লকডাউন কার্যকরে ভুমিকা রাখার আহবান জানিয়ে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক  অঞ্চল কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান ও সিনিয়র পবণ চৌধুরী বলেন, মানুষের জীবন জীবিকা এক সাথে জড়িত। মানুষ যত বেশী স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবে, তত সংক্রামণ কম হবে, আর সংক্রামণ কমে গেলে লকডাউন তোলে নেয়া হবে। লকডাউনে শ্রমজীবি মানুষরা খুব দুর্ভোগে ভুগেন। তাই করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলায় সবাইকে সচেতন হতে হবে এবং যার যার অবস্থান থেকে দায়িত্ব পালন করতে হবে।

রাঙামাটি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions