বুধবার | ১২ অগাস্ট, ২০২০

বান্দরবানে ৬ হত্যাকান্ডের ঘটনায় মামলা দায়ের

প্রকাশঃ ০৮ জুলাই, ২০২০ ০৯:৩৮:৪৭ | আপডেটঃ ১১ অগাস্ট, ২০২০ ০৪:০১:৪৭  |  ৮০৫
সিএইচটি টুডে ডট কম, বান্দরবান। বান্দরবানে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (এম এন লারমা ) গ্রুপের ৬জনের হত্যা ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বুধবার (৮জুলাই) সন্ধ্যা ৭টায় বান্দরবান সদর থানায় পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (এম এন লারমা ) গ্রুপের বান্দরবান জেলার সেক্রেটারী উবামং মারমা বাদী হয়ে এই হত্যা মামলা দায়ের করেন।

বান্দরবান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: শহিদুল ইসলাম চৌধুরী জানান, পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (এম এন লারমা ) গ্রুপের বান্দরবান জেলার সেক্রেটারী উবামং মারমা বাদী হয়ে ১০ জনের নামে ও অজ্ঞাত আরো ১০জন মিলে সর্বমোট বিশজনকে এই হত্যা মামলার আসামী হিসেবে মামলা দায়ের করেছে। তিনি আরো জানান,বাদীর মামলার প্রেক্ষিতে ৩২৬,৩০৭,৩০২, ও ৩৪ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বান্দরবান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: শহিদুল ইসলাম চৌধুরী  আরো জানান,ঘটনার পর থেকেই পুলিশের সদস্যরা হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতদের ধরতে অভিযান অব্যাহত রেখেছে।

এদিকে সন্ধ্যায়  ৬ জনের লাশ ময়নাতদন্ত শেষে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এসময় বান্দরবান সদর হাসপাতালের মর্গের সামনে নিহত পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (এম এন লারমা ) গ্রুপের  বান্দরবান জেলা কমিটির সভাপতি রতন তঞ্চংগ্যার লাশ তার ছেলে কিতন তঞ্চংগ্যা ও সহধর্মীনি মিনি প্রু মারমা গ্রহণ করে। অন্যদিকে বাকী পাঁচজনের লাশ নিতে খাগড়াছড়ি থেকে কেউ বান্দরবানে না আসায় নেতাদের পক্ষে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (এম এন লারমা ) গ্রুপের বান্দরবান জেলার সেক্রেটারী উবামং মারমার  কাছে হস্তান্তর করেন বান্দরবানের রাজবিলা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো:শফিকুর রহমান।

প্রসঙ্গত, ৭জুলাই (মঙ্গলবার) সকালে বান্দরবান সদর উপজেলার রাজবিলা ইউনিয়নের বাঘমারা বাজার পাড়ায় সন্ত্রাসীদের গুলিতে বান্দরবানে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (এম এন লারমা ) গ্রুপের ৬জনকে গুলি করে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা। ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হয়েছে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (এম এন লারমা ) গ্রুপের (১) কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি বিমল কান্তি চাকমা ( প্রজিৎ) ৬৮, (২) খাগড়াছড়ি উপদেষ্টা কমিটির সদস্য চিং থোয়াইঅং মারমা ডেভিড ৫৬ ,(৩) বান্দরবান জেলা কমিটির সভাপতি রতন তঞ্চংগ্যা ৫০, (৪)  পার্বত্য চট্টগ্রাম যুব সমিতির খাগড়াছড়ির সদস্য রবীন্দ্র চাকমা (মিলন) ৫০, (৫) পার্বত্য চট্টগ্রাম যুব সমিতির খাগড়াছড়ির সদস্য রিপন ত্রিপুরা জয় ৩৫, ও পার্বত্য চট্টগ্রাম যুব সমিতির খাগড়াছড়ির সদস্য জ্ঞান ত্রিপুরা (দিপেন) ৩২ । আহত হয়েছে নিরু চাকমা,বিদ্যুৎ ত্রিপুরা,প্রু বা চিং মারমা।

বান্দরবান |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions