মঙ্গলবার | ১৮ জুন, ২০১৯
বান্দরবান

অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার আর সন্ত্রাসীদের ধরতে এসপির নেতৃত্বে অভিযান শুরু

প্রকাশঃ ২৩ মে, ২০১৯ ১১:৩৯:৫১ | আপডেটঃ ১৮ জুন, ২০১৯ ০৬:৪৯:৪৭  |  ১৫৩৩
সিএইচটি টুডে ডট কম, বান্দরবান। অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার আর সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারে মাঠে নামলেন বান্দরবানের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকির হোসেন মজুমদার। সম্প্রতি বান্দরবানে রাজবিলা ইউনিয়নে খুন,অপহরণ ও চাঁদাবাজদের দৌরাত্ম্য বেড়ে যাওয়ায় বান্দরবানের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকির হোসেন মজুমদার নিজেই সাঁড়াশি অভিযান নিয়ে মাঠে নেমে পড়েন।

বৃহস্পতিবার সকালে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকির হোসেন মজুমদারের নেতৃত্বে বান্দরবান সদরের রাজবিলা ইউনিয়নের ২ ও ৩নং রাবার বাগান,বুড়িপাড়া ও কুহালং ইউনিয়নের উজি হেডম্যান পাড়া, চড়–ই পাড়া,হেব্রণ পাড়াসহ বিভিন্ন বাড়ী ও দুগর্ম পাহাড়ের বিভিন্ন স্থানে এই সাঁড়াশি অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসময় বিভিন্ন দুর্গম পাহাড়ে চষে বেড়ান পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকির হোসেন মজুমদার। অভিযানে বিভিন্ন বাড়ীঘর তল্লাশী করা হয় এবং সন্ত্রাসীদের কোথাও স্থান না দেওয়ার জন্য এলাকাবাসীকে আহবান জানান পুলিশ সুপার। এসময় পুলিশ সুপার এলাকার যুবক যুবতীদের সংঙ্গে মতবিনিময় করে এবং সন্ত্রাসীদের কোন তথ্য থাকলে পুলিশকে জানানোর আহবান জানান।

অভিযানের সময় বান্দরবানের উজি হেডম্যান পাড়া থেকে অপহৃত সাবেক পৌর কাউন্সিলর  চথোয়াই মং মার্মার খামার বাড়ী পরিদর্শন ও এলাকাবাসীর সাথে মতবিনিময় করা হয় । এসময় পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকির হোসেন মজুমদার রোজা রেখে দুর্গম পাহাড়ের বিভিন্ন পাহাড় উঠেন এবং সন্ত্রাসীদের খোঁজ শেষ করে আবার পাহাড় বেয়ে নিচে নেমে আসেন। অভিযানে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ কামরুজ্জামান ,সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কমর্কতা (ওসি) মোঃ শহিদুল ইসলাম চৌধুরী, ওসি তদন্ত এনামুল হক ভুইয়াসহ পুলিশের অর্ধ শতাধিক সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

সাঁড়াশি অভিযান পরিচালনা শেষে পুলিশ সুপার মোহাম্মাদ জাকির হোসেন মজুমদার বলেন,কোন সন্ত্রাসীর বান্দরবানে আশ্রয় হবে না এবং সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে এই অভিযান অব্যাহত থাকবে। সম্প্রতি বান্দরবানে খুন ও অপহরণ বেড়ে যাওয়ায় পুলিশের পক্ষ থেকে এই সাঁড়াশি অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে এবং এই অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এসময় তিনি আরো বলেন, বুধবার রাতে সদরের উজি হেডম্যান পাড়া নিজ খামার বাড়ী থেকে সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা অপহরণ করে নিয়ে যায় সাবেক পৌর কাউন্সিলর  চথোয়াই মং মার্মাকে, আর এর পরপরই অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার ও সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারে আমরা পুলিশ বিভাগ মাঠে নামি। এসময় পুলিশ সুপার আরো বলেন, অপহৃত সাবেক পৌর কাউন্সিলর চথোয়াই মং মার্মার কোন তথ্য বা সংবাদ কারো কাছে থাকলে অবশ্যই পুলিশকে জানাবেন এবং কোন জায়গায় সন্ত্রাসীদের উপস্থিতি দেখলে পুলিশকে ফোন করে সংবাদ পৌঁছে দেবেন।

বান্দরবান |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions