জুরাছড়িতে সেনাবাহিনীর উদ্যোগে সেলাই মেশিন, ঢেউ টিন ও নগদ অর্থ বিতরণ

প্রকাশঃ ০৩ ডিসেম্বর, ২০২০ ০৪:০১:৪৩ | আপডেটঃ ২৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২১ ০৯:০১:১৬
সিএইচটি টুডে ডট কম, জুরাছড়ি (রাঙামাটি)। রাঙামাটি জুরাছড়ি উপজেলায় দু:স্থদের মাঝে সেলাই মেশিন, ঢেউ টিন, নগদ অর্থ বিতরণ এবং স্থানীয় প্রশাসন-হেডম্যান কার্ব্বারীদের সাথে মতবিনীময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার জুরাছড়ি জোন সদর দপ্তরে অনুষ্ঠিত সভায় জোন অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল তানভীর হোসেন সভায় ভাপতিত্ব করেন। জোন উপ-অধিনায়ক মেজর নাজমুল হাসানের ধারা সঞ্চলনায় সভায় নবাগত জোন অধিনায়ক লে: কর্ণেল মুহাম্মদ আকতারুজ্জামান ফয়সাল, উপজেলা চেয়ারম্যান  সুরেশ কুমার চাকমা, উপজেলা নির্বাহী অফিসার জিতেন্দ্র কুমার নাথ মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন।

সভা শুরুতেই জোন অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল তানভীর হোসেন নবাগত জোন অধিনায়ক মুহাম্মদ আকতারুজ্জামান ফয়সালকে সবার সাথে পরিচয় করিয়ে দেন। এর পর সভায় উন্নয় পরিকল্পা ও বাস্তবায়ন চিত্র তুলে ধরেন উপজেলা চেয়ারম্যান সুরেশ কুমার চাকমা ও নির্বাহী অফিসার জিতেন্দ্র কুমার নাথ, আইন শৃংখলা পরিস্থিতি বিষয়ে বক্তব্য রাখেন থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ মাহমুদুল হাই, ইউপি চেয়ারম্যান জুরাছড়ি ক্যানন চাকমা, বনযোগীছড়া সন্তোষ বিকাশ চাকমা, মৈদং সাধনানন্দ চাকমা এবং দুমদুম্যার ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান সাধন কুমার চাকমা। এছাড়াও উম্মুক্ত আলোচনায় স্থানীয় হেডম্যান, কার্ব্বারী এবং গন্যমান্য ব্যক্তি এলাকার বিভিন্ন সমস্যা ও সম্ভাবনর কথা তুলে ধরেন।

নবাগত জোন অধিনায়ক মুহাম্মদ আকতারুজ্জামান ফয়সাল বলেন, সেনা প্রশাসনকে পর্যাপ্ত ও সঠিক ভাবে সহযোগীতা প্রদান করা হয়, তাহলে এই উপজেলা আরো উন্নয়ন করা সম্ভব। যারা ব্যবসা ও পড়া লেখা করছেন তাদের আরো উন্নতি হবে।

তিনি আরো বলেন বিগত সময়ে যেভাবে পাহাড়ে সেনা বাহিনী প্রান্তিক পর্যায়ে সার্বিক সহযোগীতা প্রদান করেছে-বর্তমানেও এ সহযোগীতা অব্যাহত থাকবে।

এ সময় মৈদং ইউপি চেয়ারম্যান সাধনানন্দ চাকমা বলেন, বর্তমান পাবর্ত্য চট্টগ্রামে বিরাজমান পরিস্থিতে জনপ্রতিনিধিরা যেন ফুটবল খেলার মাঠে বলের মত হয়ে পড়েছে। কেননা, বিরাজমান পরিস্থিতে এখন জনপ্রতিনিধিরা প্রতিবন্ধি বোবার মত স্বপ্নের কান্ডারী।

তিনি বলেন, আঞ্চলিক পরিস্থিতি এমন, কোন দুর্বৃত্তের হামলায় অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটলেই অহেতুক ভাবে মামলায় জনপ্রতিনিধিদের নাম চলে আসতেছে। শুধু জনপ্রতিনিধিই নয়-স্থানীয় হেডম্যানদেরও সংযুক্ত করা হচ্ছে।  সুতরাং বর্তমানে কোন ঘটনা ঘটলেই জনপ্রতিনিধিরা মামলার জটিলতার অসহায় মানবেত জীবন যাপন করতে হয়। এলাকায় সুষম উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে এমন আইনি জটিলতায় নিরুপরাধদের মামলায় না জড়ানোর জন্য সেনা প্রশাসনের সুদৃষ্টি রাখার অনুরোধ জানান তিনি।

পরে সতের জনকে আর্থিক অনুদান, ৫জন গৃহহীনদের জন্য ঢেউ টিন, দুস্থ্য নারীদের জন্য কর্মসংস্থান সৃষ্টির জন্য ২ জনকে সেলাই মেশিন, নারী ক্রিকেট খেলোয়ারদের জন্য ক্রিকেট সরঞ্জম ও জার্সি বিতরণ করেন।


সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions