দীঘিনালা ছাত্রলীগ পরিবারতন্ত্রের পথে হাটছে অভিযোগ নেতাকর্মীদের

প্রকাশঃ ১৬ অক্টোবর, ২০২০ ১১:০০:৪৯ | আপডেটঃ ০৩ ডিসেম্বর, ২০২০ ১১:৪৮:২০
সিএইচটি টুডে ডট কম, খাগড়াছড়ি। খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলা ছাত্রলীগ পরিবারতন্ত্রের পথে হাটছে অভিযোগ তুলে আগামী ৬ নভেম্বর অনুষ্ঠিতব্য উপজেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন প্রস্তুতির বৈঠক বয়কট করেছে নেতাকর্মীরা।

শুক্রবার বিকেলে দীঘিনালা উপজেলা আওয়ামীলীগের কার্যালয়ে সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি গঠনের লক্ষে সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি  মাহবুব আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভা চলাকালীন একপর্যায়ে বিভিন্ন ইউনিয়ন কমিটির কার্যক্রম, অনুমোদন এবং স্বজনপ্রীতির অভিযোগ তুলে উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বাবুলী কুমার দে সহ বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী বয়কট করেন।

দীঘিনালা উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বাবলু কুমার দে মুঠোফোনে জানান, দীঘিনালা উপজেলার ৫ ইউনিয়ন ও দীঘিনালা ডিগ্রী কলেজসহ ছাত্রলীগের ৬ টি ইউনিট থাকার কথা। মেরুং ইউনিয়ন ও কবাখালী ইউনিয়নে পূর্ণাঙ্গ কমিটি না থাকলেও বর্তমান উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মাহবুব আলম সম্মেলনের আগে গোপনে এসব কমিটিকে কার্যকর দেখিয়ে কাউন্সিলর করতে চাচ্ছেন। এছাড়া বর্তমান কমিটির সহ সভাপতি নুর হোসেনকে আহ্বায়ক করে বৈঠকে তার পেশ করেন। এর পেছনে মূল কারণ মাহবুব আলমের আপন ছোট ভাই মেহেদী আলমকে তার স্থলে সভাপতি করা। ছাত্রলীগকে পারিবারিক প্রতিষ্ঠানে রূপান্তর করতে এমন হীন কাজ করায় নেতাকর্মীরা সভা বয়কট করে উঠে আসেন। আমরা উপজেলা আওয়ামীলীগ ও জেলা ছাত্রলীগকে এ বিষয়ে অবহিত করেছি।

এ বিষয়ে উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা কামাল মিন্টু জানান, উপজেলা ছাত্রলীগ চাইলে যে কোন সময় ইউনিয়ন কমিটির অনুমোদন দিতে পারেন। মেরুং ইউনিয়নের কমিটি নিয়ে কিছু জটিলতা আছে, এ ছাড়া কবাখালী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের কমিটির নির্বাচিতরা আসন্ন সম্মেলনে কাউন্সিলর হচ্ছে কিনা এটাও সিদ্ধান্ত নিবে উপজেলা আওয়ামীলীগ ও জেলা ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ।

দীঘিনালা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মাহবুব আলম জানান, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি’র পরামর্শে এবং উনার উপস্থিতিতে আগামী ৬ নভেম্বর সম্মেলন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। এখানে শুধু আমার ভাই একা নয়, সভাপতি পদে ৩ জন এবং সাধারণ সম্পাদক পদে ৬ জন প্রতিদ্বন্দ্বীতা করতে চান। জেলা ও উপজেলা আওয়ামীলীগ এবং জেলা ছাত্রলীগ সম্মেলনের দিন যে রকম সিদ্ধান্ত দিবেন তা পালনে আমরা প্রস্তুতি নিয়েছি। ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্র অনুসরণ করে সম্মেলনের প্রস্তুতি গ্রহণ করা হচ্ছে।

খাগড়াছড়ি জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি টিকো চাকমা জানান, ছাত্রলীগের যেকোন কমিটি গঠনের ক্ষেত্রে গঠনতন্ত্র অনুসরণ করা হয়। সম্মেলন অনুষ্ঠিত করার যে রকম নিয়ম রয়েছে তার কোন ব্যত্যয় হবে না এ ক্ষেত্রেও।

সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions