রবিবার | ১৭ অক্টোবর, ২০২১

বান্দরবানে নির্মিত হচ্ছে দৃষ্টিনন্দন টানেল

প্রকাশঃ ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০৬:১২:০৯ | আপডেটঃ ১৬ অক্টোবর, ২০২১ ০৮:২০:১৩  |  ২৬০
সিএইচটি টুডে ডট কম, বান্দরবান।  বান্দরবানে নির্মাণ করা হচ্ছে দৃষ্টিনন্দন টানেল। বান্দরবানের বর্তমান বাস স্টেশন হয়ে প্রস্তাবিত কেন্দ্রীয় টার্মিনাল হাফেজঘোনায় যাওয়ার পথে পাহাড়ি সড়কে দীর্ঘ ৫শত ফুট আধুনিক এই টানেল নির্মাণ করা হচ্ছে।

টানেলটি বর্তমান বাসস্টেশনের সঙ্গে কেন্দ্রীয় টার্মিনাল সড়ককে সংযোগ করবে,টানেলের ভেতর দিয়ে সকল ধরণের বাসসহ সাধারণ জনসাধারণ চলাচল করার জন্য ফুটপাতের ও ব্যবস্থা রয়েছে। এটি চালু হলে  পর্যটন শহর বান্দরবানের সৌন্দর্য আরও একধাপ বেড়ে যাবে বলে প্রত্যাশা স্থানীয়দের।

সুত্রে জানা যায়, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের অর্থায়নে ১০কোটি ২৫লক্ষ টাকা ব্যয়ে এই টানেলটির নির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে। ২০২২ সালের ডিসেম্বর মাসে এটি উদ্বোধন করা হবে। বর্তমান বান্দরবান সদরের কেন্দ্রীয় বাসস্টেশানটি ছোট হওয়ায় দ্রুত সময়ে নবনির্মিত কেন্দ্রীয় বাসটার্মিনালে প্রবেশের জন্য পাহাড়ের সৌন্দর্য্য বৃদ্ধি করে এই টানেলের কাজ শুরু করেছে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড। এই টানেলটি চালু হলে সাধারণ জনগণের দুর্ভোগ কমবে এবং যানজটমুক্ত একটি বান্দরবান শহর হবে বলে আশা কর্তৃপক্ষের।

টানেলটির নির্মাণ কাজের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মের্সাস এম এম টেড্রাস এর সত্বাধিকারী রাজু বড়–য়া জানান,আমরা কাজের কার্যাদেশ পাওয়ার পর টানেলটির নির্মাণ কাজ করে যাচ্ছি। টানেলটির ভিতরে আধুনিকমানের ২৪ফুট সড়ক ও ৩ফুট ফুটপাত এর কাজ চলছে। পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড এর এই কাজটি সমাপ্ত হলে বর্তমান বাসস্টেশানে যানজট কমে আসবে এবং কাটা পাহাড় এলাকাটিতে পাহাড় ধসে সড়ক যোগাযোগ বন্ধের সম্ভাবনা অনেকটাই কমে যাবে। মের্সাস এম এম টেড্রাস এর সত্বাধিকারী রাজু বড়–য়া আরো জানান,পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপির আন্তরিকতার কারণে পার্বত্য এলাকায় বিভিন্ন উন্নয়ন কাজ চলমান রয়েছে এবং এই টানেলটি চালু হলে পার্বত্য এলাকার যোগাযোগ ব্যবস্থা আরো একধাপ এগিয়ে যাবে।

পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড বান্দরবান ইউনিটের প্রকল্প পরিচালক মো.আব্দুল আজিজ বলেন,এই টানেলটি বান্দরবানের যোগাযোগ ব্যবস্থার জন্য একটি মাইলফলক। এটি চালু হলে বান্দরবানের যোগাযোগ ব্যবস্থা অনেকটাই সহজ হবে। ঢাকা ও চট্টগ্রামসহ দেশের যেকোন এলাকার যাত্রীরা সহজেই বান্দরবানের প্রবেশমুখে এসে সদর এলাকায় না ঢুকেই রুমা,থানচি ,চিম্বুকসহ বিভিন্ন এলাকায় ভ্রমন করে আবার সহজেই ফেরত যেতে পারবে।

পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড বান্দরবান ইউনিটের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু বিন মোহাম্মদ ইয়াসির আরাফাত জানান, দুই দফায় মোট ১০কোটি ২৫ লাখ টাকা ব্যয়ে ৫০০ ফুট দীর্ঘ এই টানেলটি নির্মাণ করার কাজ চলমান রয়েছে।  প্রথম দফায় ২০১৮-১৯ অর্থ বছরে ৫কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়, তখন ৩০০ ফুট দীর্ঘ টানেল হওয়ার কথা ছিল, কিন্তু পরে তা সংশোধন করে টানেলটি আরও ২০০ ফুট বাড়িয়ে মোট ৫০০ ফুট লম্বা করে আরও ৫কোটি ২৫লাখ টাকা বরাদ্দ বাড়ানো হয়। পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড বান্দরবান ইউনিটের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু বিন মোহাম্মদ ইয়াসির আরাফাত জানান,এই টানেল পার্বত্য জেলার পাহাড়ের সৌন্দর্য্য বৃদ্ধির পাশাপাশি পর্যটকদের বিনোদনের মাধ্যম হয়ে দাঁড়াবে।



বান্দরবান |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions