শনিবার | ০৭ ডিসেম্বর, ২০১৯

রাঙামাটিতে সড়ক দুর্ঘটনায় হতাহতদের পাশে জেলা পরিষদ

প্রকাশঃ ১৭ নভেম্বর, ২০১৯ ০৭:৫০:৪২ | আপডেটঃ ০৭ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০৬:১৪:৩৫  |  ৮৭২
সিএইচটি টুডে ডট কম, রাঙামাটি। রাঙামাটিতে রোববার (১৭নভেম্বর) সকালে ঘাগড়া এলাকায় ট্রাক-সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষে ভেতরে থাকা সিএনজি অটোযাত্রী রাঙামাটি সরকারী কলেজের বিএসএস(অনার্স) এর শিক্ষার্থী এশিনচিং মারমা (২০) নিহত ও চার যাত্রী গুরুতর আহত হওয়ায় ঘটনা ঘটে।

ঘটনাস্থলের পাশে থাকা স্থানীয়রা হতাহতদের উদ্ধার করে রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করে। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা ও পরিষদ সদস্য অংসুইপ্রু চৌধুরী হাসপাতালে নিহত ও আহতদের খোঁজ খবর নিতে ছুটে যান। আহতদের পর্যাপ্ত চিকিৎসা প্রদানের জন্য হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসকদের চেয়ারম্যান নির্দেশ দেন এবং তাদের সু-চিকিৎসা ও ওষুধপত্র ক্রয়ের জন্য পরিষদ হতে আহত প্রত্যেক পরিবারের হাতে নগদ ১০হাজার টাকা করে প্রদান করেন। আহতদের মধ্যে শীলমনি চাকমা’র অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হয় এবং অপর তিনজন রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

অন্যদিকে পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা তার অফিস কক্ষে নিহত এশিনচিং মারমা’র শেষকৃত্য সম্পন্ন করার জন্য তার পিতার হাতে নগদ ২০ হাজার টাকা প্রদান করেন। এসময় রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য অংসুইপ্রু চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

অর্থ সহায়তা প্রদান শেষে রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা বলেন, চালকদের উদাসীনতা, অসচেতনতা, ফিটনেসবিহীন ও  দ্রুত বেপরোয়া গাড়ী চালানোর কারণে দেশের কোন না কোন জায়গায় নিত্যদিনই এধরনের ঘটনা ঘটে চলেছে। ফলে অকালে প্রাণ হারাতে হচ্ছে স্বজনদের। তিনি বলেন, এ ধরনের দুর্ঘটনা কারোর জন্য কাম্য নয়।

পরিষদ চেয়ারম্যান নিহতের অকাল মৃত্যুতে গভীর শোক ও সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

দুর্ঘটনায় আহতরা হলেন নানিয়ারচর ঘিলাছড়ি ইউনিয়নের তাকাছড়ি গ্রামের শুক্র চাকমার ছেলে শিলমনি চাকমা (২৫), কাউখালী রাঙ্গীপাড়ার মৃত সোলাইমান এর ছেলে মোঃ দুলাল, কাউখালী সুগারমিল আদশর্ গ্রামের আব্দুল গফুরের স্ত্রী আক্তার বেগম ও কাউখালী একই গ্রামের মোঃ তারেক এর স্ত্রী লাকী আক্তার।

রাঙামাটি |  আরও খবর
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions