বুধবার | ১৬ অক্টোবর, ২০১৯

থানচিতে দূর্নীতি ও আত্মীয়করনের মাধ্যমে শিক্ষক তালিক করার অভিযোগ

প্রকাশঃ ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০২:৩৫:৩৫ | আপডেটঃ ১৫ অক্টোবর, ২০১৯ ১০:২৬:১৯  |  ২১১
সিএইচটি টুডে ডট কম, বান্দরবান। ইউএনডিপি-সিএইচটিডিএফ এর আওতায় বান্দরবানের থানচি উপজেলায় ব্যাপক দূর্নীতি ও আত্মীয়করনের মাধ্যমে প্রস্তুতকৃত শিক্ষক-শিক্ষিকার তালিকা বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে ।

থানচি জনপ্রতিনিধি, সুশীল সমাজ ও বঞ্চিত শিক্ষক শিক্ষিকার ব্যানারে রোববার ১৫ই সেপ্টেম্বর সকালে থানচি বাজারে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এসময় মানববন্ধনে বিদ্যালয়ের পূর্বের শিক্ষকদের বহাল রেখে পূনরায় তালিকা প্রকাশের দাবী জানিয়ে ব্যানার ও প্ল্যার্কাড হাতে নিয়ে ইউএনডিপি-সিএইচটিডিএফ এর আওতায় বিভিন্ন বিদ্যালয়ে কর্মরত শিক্ষক শিক্ষিকা ও তাদের অভিভাবকরা অংশ নেন।

মানববন্ধনে বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, দীর্ঘদিন বান্দরবানের দূর্গম থানচি উপজেলায় বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা ইউএনডিপি-সিএইচটিডিএফ এর প্রকল্পের আওতায় বিভিন্ন বিদ্যালয়ে শিক্ষক শিক্ষিকারা ভালো ভাবে চাকরী করে আসলে ও সম্প্রতি একটি নতুন তালিকা প্রকাশ করে ১৫ জন শিক্ষককে চাকরী থেকে বাদ দেয়া হয়। এসময় মানববন্ধনে বক্তারা আরো অভিযোগ করে বলেন,ব্যাপক দুনীর্তি ও আত্মীয় করণের মাধ্যমে বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা ইউএনডিপি-সিএইচটিডিএফ শিক্ষকদের নতুন তালিকা প্রকাশ করেছে যা অত্যান্ত দু:খজনক।
 
এসময় বক্তারা, অবিলম্বে ইউএনডিপি-সিএইচটিডিএফ প্রকল্পের আওতায় পূনরায় তালিকা প্রকাশ করে কর্মরত সকল শিক্ষককে চাকরিতে বহাল রাখার জন্য সরকারের কাছে আবেদন জানান। মানববন্ধনে বক্তারা,অনতিবিলম্বে এই তালিকা বাতিল করে পূর্বের শিক্ষকদের স্ব-পদে বহাল না রাখলে উপজেলায় বৃহত্তর আন্দোলন কর্মসুচী গ্রহণের ঘোষনা ও দেন।
এসময় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন শিক্ষক জ্ঞান সুন্দর চাকমা, ইউজ ত্রিপুরা, অভিভাবক নসরাং ত্রিপুরাসহ প্রমুখ।

মানববন্ধন শেষে মানববন্ধনে অংশ নেয়া শিক্ষক শিক্ষিকা ও তাদের অভিভাবকরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে প্রাথমিক ও গণ শিক্ষা প্রতিমন্ত্রীর বরবারে একটি স্মারকলিপি প্রদান করে।

প্রসঙ্গত, বান্দরবানের থানচি উপজেলায় ইউএনডিপি-সিএইচটিডিএফ এর প্রকল্পের আওতায় ২০টি বিদ্যালয় রয়েছে আর এতে শিক্ষক রয়েছে ৬২ জন ।

 
এইমাত্র পাওয়া
আর্কাইভ
সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত, ২০১৭-২০১৮।    Design & developed by: Ribeng IT Solutions