শিরোনামঃ

বাল্য বিবাহের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার আহবান ফিরোজা বেগম চিনু এমপির

সিএইচটি টুডে ডট কম, রাঙামাটি। বাল্য বিবাহের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার লক্ষ্যে রাঙামাটিতে বাল্য বিবাহ বিরোধী বিশেষ প্রচারনা অভিযান শুরু হয়েছে। বাল্য বিবাহ কে না বলুন এবং বাল্য বিবাহের বিরুদ্ধে জনমত গড়ে তুলুন এই আহবান জানানোর মধ্য দিয়ে আজ রাঙামাটি সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত ছাত্র-ছাত্রী সমাবেশের মধ্য দিয়ে এই প্রচারাভিযানের উদ্বোধন করেন সংসদ সদস্য ফিরোজা বেগম চিনু। পার্বত্য চট্টগ্রাম সমন্বিত সমাজ উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্যোগে এবং ইউনিসেফের সহায়তায় আয়োজিত এই প্রচারাভিযানের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ মানবাধিকার কিমিশনের সদস্য অধ্যাপিকা বাঞ্চিতা চাকমা।

রাঙামাটি সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সুশান্তময় চাকমার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বাল্য বিবাহ বিরোধী ক্যাম্পেইন এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন প্রবীন সাংবাদিক সুনীল কান্তি দে, জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা বেগম হোসনে আরা, এ্যাডভোকেট সুষ্মিতা চাকমা, ইউনিসেফ প্রতিনিধি মং ইয়ে । ক্যাম্পেইন এ ধারনা পত্র উপস্থাপন করেন পার্বত্য চট্টগ্রাম সমন্বিত সমাজ উন্নয়ন প্রকল্পের প্রকল্প ব্যবস্থাপক মোঃ জানে আলম।

ক্যাম্পেইন এর উদ্বোধন কালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংসদ সদস্য ফিরোজা বেগম চিনু বলেন, বাল্য বিবাহ আমাদের সমাজের জন্য এবং জাতির জন্য অভিশাপ । এই অভিশাপ থেকে আমাদের মুক্তি পেতে হবে। আমাদের জাতীয় উন্নতি ও অগ্রগতির পথে বাঁধার সৃষ্টি করছে এই বাল্য বিবাহ তাই বাল্য বিবাহ বন্ধে আমাদের সকলকে ঐক্যবদ্ধ ভাবে এগিয়ে আসতে হবে। বাল্য বিবাহ বন্ধ কল্পে সরকারের পক্ষ থেকে কঠোর আইন প্রনীত হয়েছে ।

পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলের যে সব প্রত্যন্ত এলাকায় বাল্য বিবাহের ঘটনা বেশী রয়েছে সেসব এলাকায় এই বিষয়ে ব্যাপক প্রচারনা চালানোর উপর গুরুত্বারোপ করে বলেন প্রচারনা কারযক্রমে সকলের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে হবে। তিনি ছাত্রীদের উদ্দেশ্যে বলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকার স্কুল থেকে কলেজ পরযায় পর্যায় সকল স্তরে ছাত্রীদের বিনামূল্যে লেখাপড়ার সূযোগ সৃষ্টির পাশাপাশি উপ বৃত্তি চালু করেছেন । তাই এ ব্যাপারে তোমাদের নিজের অধিকার প্রতিষ্ঠায় সবার আগে সজাগ হতে হবে।
প্রচারাভিযানের উদ্বোধন কালে ইউনিসেফ পরিচালিত জরিপের সূত্র উল্লেখ করে জানানো হয় তিন পার্বত্য জেলায় বাল্য বিবাহের হার এখনো শতকরা ৪০ ভাগ। এর মধ্যে ১৫ বছরের আগেই শতকরা ৯.৮% ভাগ মেয়ের বিয়ে হয়। এর মধ্যে রাঙামাটি পার্বত্য জেলায় এই হার শতকরা ১৩.৪%। তিন পার্বত্য জেলায় ১৮ বছরের আগে মেয়েদের বিয়ের শতকরা হার৪১.৬% এবং রাঙামাটি পার্বত্য জেলায় এই হার শতকরা ৪৪.৫%. । বাল্য বিবাহের সার্বিক চিত্রে রাঙামাটি পার্বত্য জেলার অবস্থান আশ্যাব্যঞ্জক নয়। তাই এখানে আমাদের বাল্য বিবাহ রোধী প্রচারাভিযান জোরদার করতে হবে।
রাঙামাটি সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৫ শতাধিক শিক্ষার্থী সহ শিক্ষক, আাইসিডিপির পাড়া কর্মী, সাংবাদিক এই প্রচারাভিযানের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অংশ নেয়।

on

খবরটি 41 বার পঠিত হয়েছে


Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

*
*

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.

ChtToday DOT COMschliessen
oeffnen