শিরোনামঃ

পানছড়িতে গৃহবধু স্বপ্না হাজারিকে হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন

সিএইচটি টুডে ডট কম ডেস্ক। খাগড়াছড়ি প্রেস ক্লাবের সামনে সচেতন ছাত্র সমাজ ও নারী নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির ব্যানারে পানছড়ি গৃহবধু স্বপ্না হাজারীর হত্যাকারীর গ্রেপ্তার ও ফাঁসির দাবীতে মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। বুধবার সকালে খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের শিক্ষার্থী মো: ইউনুস এর সঞ্চালনায় মানব বন্ধনে বক্তব্য রাখেন নাগরিক সমাজের প্রতিনিধী রাসেল প্রধাণ লেবু। ছাত্র সমাজের পক্ষে মো: জয়নাল আবেদীন (পরান), মো: ইব্রাহীম, মো: হারুনুর রশিদ, এছাড়াও স্বপ্না হাজারীর বোন- রিংকু মনি, স্বপ্না হাজারীর বড় ভাই- মেকু বণিক, ভগ্নিপতি- দীলিপ নাগ সহ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

মানব বন্ধনে বক্তারা বলেন- গত ১লা জুন পানছড়িতে গৃহবধু স্বপ্না হাজারী তার স্বামী গোপাল হাজারী কর্তৃক নির্মম ভাবে খুনের শিকার হয়। দীর্ঘ দেড় মাসের মত অতিবাহিত হলেও এই হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত গোপাল হাজারী এবং অন্যান্য কোন আসামীকেই প্রশাসন গ্রেপ্তার করতে পারেনি। উল্লেখ্য যে, আসামী পক্ষের লোকজন এই পরিকল্পিত হত্যাকান্ডকে আত্মহত্যা বলে ধামাচাপা দেওয়ার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। এছাড়াও স্বপ্না হাজারী’র আত্মীয় স্বজনকে মামলা না করার জন্য হুমকী-ধামকী প্রদান করে আসছে। প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বক্তারা দ্রুত এই হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত গোপাল হাজারী সহ অন্যান্য আসামীদের গেপ্তার পূর্বক ফাঁসির দাবী জানান।

মানব বন্ধনে স্বপ্না হাজারীর বড় বোন রিংকু মনি কান্নাজড়িত কন্ঠে বলেন- আমার বোনকে দীর্ঘদিন যাবত গোপাল হাজারী শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে আসছেন। বিভিন্ন সময়ে আমার বোন আমাদেরকে মোবাইলের মাধ্যমে এসকল তথ্য জানায়। সর্বশেষ গোপাল হাজারী পরকীয়া প্রেমে বাধা দেওয়ার কারনে আমার বোনকে নির্মম ভাবে হত্যা করে। শুধু তাই নয় এই হত্যাকে ধামাচাপা দেওয়ার জন্য কথিত আত্মহত্যার নামে মিথ্যাচার করা হচ্ছে। আমরা প্রশাসন, সাংবাদিক, রাজনীতিবীদ ও সর্বস্তরের সচেতন নাগরিকদের আমাদের পাশে দাড়িয়ে এই হত্যাকান্ডের বিচার ত্বরান্বিত করার আহ্বান জানাচ্ছি।

স্বপ্না হাজারীর বড় ভাই- মেকু বণিক বলেন- হত্যাকান্ডের ঘটনায় পানছড়ি থানায় মামলা দায়ের করতে গেলে পানছড়ি থানার অফিসার আবদুল জব্বার মামলা গ্রহন না করে উল্টা আমাদেরকে ৫/৬ ঘন্টা থানা হাজতে আটকে রেখে জোরপূর্বক সাদা কাগজে স্বাক্ষর নেয় এবং মামলা না করার জন্য হুমকী প্রদান করে। পরবর্তীতে আমরা খাগড়াছড়ি কোর্টে মামলা দায়ের করি (মামলা নং-ঈজ-১৫৩/১৭)। এছাড়াও আব্দুল জব্বার বলেন গোপাল হাজারী আমার বন্ধু, সুতরাং তার (গোপাল হাজারী) বিরুদ্ধে মামলা করলে তোমাদের বড় বিপদ হবে। এসময় তিনি পানছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল জব্বারের অপসারন দাবী করেন। পাশাপাশি অতি দ্রুত এই মামলার আসামী গোপাল হাজারীর গ্রেপ্তার ও ফাঁসি দাবী করেন।

মানব বন্ধনে বক্তারা প্রশাসন, গোয়েন্দা সংস্থার প্রতি স্বপ্না হাজারী’র হত্যাকান্ডের সুষ্ঠু তদন্ত পূর্বক গোপাল হাজারীকে গ্রেপ্তার ও ফাঁসির দাবী জানান। এছাড়াও সাংবাদিক সহ সকল সচেতন নাগরিকবৃন্দের এই হত্যাকান্ডের বিচারের দাবীর প্রতি সমর্থন জানানোর আহ্বান জানান।

Print Friendly, PDF & Email

Share This:

খবরটি 34 বার পঠিত হয়েছে


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*
*

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.

ChtToday DOT COMschliessen
oeffnen